আজ ৭ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১শে জুন, ২০২১ ইং

ওয়াসার সমিতিতে চলছে তুঘলকি কাণ্ড

ঢাকা ওয়াসার কর্মচারী বহুমুখী সমবায় সমিতিতে চলছে তুঘলকি কাণ্ড। আড়াই হাজার সদস্যের নিবন্ধিত এ সমিতির দখল প্রতিষ্ঠায় কতিপয় সদস্য গোপনে নিজেদের মতো কমিটি গঠন করায় কর্মচারীদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

জানা গেছে, পারস্পরিক যোগসাজশে অসাধু চক্রটি এখন ঢাকা জেলা সমবায় অফিসকে ম্যানেজ করে কমিটি অনুমোদনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

ভোটারবিহীন কমিটি গঠনের ঘটনায় যারা প্রতিবাদ করছেন, তাদের ভয়ভীতির পাশাপাশি প্রলোভন দেখানোর অভিযোগ উঠেছে সমিতির সভাপতি পদ দখলকারী ওয়াসার অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. আখতারুজ্জামানের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে ওয়াসায় যে কোনো সময় সংঘর্ষ হতে পারে।

পরিস্থিতি অনুধাবন করে ঢাকা ওয়াসা প্রশাসন সমিতির অন্তর্বর্তী ব্যবস্থাপনা কমিটি এবং সমবায় বিভাগকে সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠানের তাগিদ দিয়েছে। চিহ্নিত ওই চক্রটি এতেও নানা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির চেষ্টা চালাচ্ছে। বাড়তি সুযোগ-সুবিধা অক্ষুণ্ণ রাখতে গোপনে গঠিত এ কমিটি যাতে বহাল থাকে, সেজন্য পর্দার অন্তরালে অর্থ ব্যয়ের অভিযোগও উঠছে।

কথা হয় ঢাকা জেলা সমবায় কর্মকর্তা মো. জহিরুল হকের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘ঢাকা ওয়াসা কর্মচারী বহুমুখী সমিতির নির্বাচনের নামে যে কমিটি করা হয়েছে, তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এ ধরনের কমিটিকে সমবায় আইন অনুযায়ী বৈধতা দেয়ার কোনো সুযোগ নেই।’ তিনি বলেন, ‘ঢাকা ওয়াসা কর্মচারী বহুমুখী সমিতির নির্বাচনের নামে যা ঘটেছে, তা আমাদের কাছে পরিষ্কার।

ফলে নতুন কমিটি গ্রহণ না করার ব্যাপারে আমরা নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আর বিদ্যমান অন্তর্বর্তী কমিটিকে দিয়ে কোনো নির্বাচন না করিয়ে এই কমিটির মেয়াদ শেষে নতুন অন্তর্বর্তী কমিটি গঠন করে ওই কমিটি দিয়ে একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের চিন্তাভাবনা করছি। সেক্ষেত্রে একজন সরকারি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে ওই কমিটির আহ্বায়ক করে নতুন কমিটি করে দেয়া হবে।’

ঢাকা ওয়াসায় একাধিক কর্মচারী সংগঠন থাকলেও কর্মচারী এবং কর্মকর্তাদের একটি অংশ ঢাকা ওয়াসা কর্মচারী বহুমুখী সমবায় সমিতির সদস্য। এটি কর্মচারী সমিতি নামে পরিচিত হলেও সমিতির বিভিন্ন পদে কর্মকর্তারাও রয়েছেন।

জানা যায়, ভোটার তালিকা নিয়েও নানা প্রশ্ন আছে। এবারের তালিকাটিও ১২ বছরের পুরনো। তালিকায় মৃত ব্যক্তিদের নামও আছে। আবার অনেকের নামও নেই। তালিকায় মৃত ব্যক্তিদের মধ্যে আছেন এমএ মজিদ, এসএম বিল্লাল হোসেন, বদিউল আলম, মোসলেহ উদ্দিন, সৈয়দ শাহ নেওয়াজ। তালিকা হালনাগাদের দাবিও উপেক্ষিত।

এসব দাবির সঙ্গে ঢাকা ওয়াসা প্রশাসন সহমত পোষণ করে সমিতির অন্তর্বর্তী কমিটি ও জেলা সমবায় অফিস এবং মেট্রোপলিটন রমনা থানা সমবায় অফিসকে বিষয়টি অবহিত করলেও এ পর্যন্ত কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।

জানা যায়, ফেব্রুয়ারিতে সমিতির বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হয়। পরে সমবায় বিভাগ থেকে ১২০ দিন মেয়াদের অন্তর্বর্তীকালীন কমিটি গঠন করে দেয়। এ কমিটি কাগজেকলমে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করলেও ভোটার তালিকা হালনাগাদ না করেই ৭ অক্টোবর ভোটের তারিখ ঠিক করে।

২ অক্টোবর ঢাকা ওয়াসার সচিব (অ. দা.) প্রকৌশলী শারমিন হক আমীর অন্তর্বর্তীকালীন ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আবদুল হাকিমকে ভোটার তালিকা হালনাগাদ করে নির্বাচনী তফসিল পুনর্নির্ধারণের নির্দেশ দেন। সেদিকে না গিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন কমিটি রুদ্ধদ্বার বৈঠক করে অতি গোপনে নতুন ব্যবস্থাপনা কমিটি ঘোষণা করেন।

সমবায় অফিসে জমা দেয়া আবেদনে বলা হয়েছে, নির্বাচনে কমিটির ১২ জন ব্যতীত অন্য কেউ অংশ নেয়নি। প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় ১৯ সেপ্টেম্বর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিতরা হলেন- সভাপতি প্রকৌশলী মো. আখতারুজ্জামান, সহসভাপতি মো. শামসুজ্জামান, সম্পাদক মো. জাকির হোসেন এবং কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা হলেন- আরমান ভূঁইয়া, বদিউল আলম, আশরাফুল আলম, রমিজ উদ্দিন, সিদ্দিকুর রহমান, কামাল হোসেন, আবদুল হাকিম, সিরাজুল ইসলাম ও বাবুল আলী। এ প্রসঙ্গে ঢাকা ওয়াসার অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী সমিতির বিতর্কিত কমিটির সভাপতি প্রকৌশলী মো. আখতারুজ্জমান যুগান্তরকে বলেন, ‘ঢাকা ওয়াসার কর্মচারীদের তিন-চারটি গ্রুপ। এদের সবাইকে ম্যানেজ করা সম্ভব নয়। এজন্য প্রভাবশালী গ্রুপটি ওই কমিটি করেছে।

এখানে বেশি সংখ্যক সদস্যভুক্ত কর্মচারী সমিতির সমর্থন রয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘আমাকে সভাপতির দায়িত্ব দেয়ার পর থেকে বিভিন্ন গ্রুপের সদস্যরা আমার কাছে আসছে। আমি তাদের কমিটি মেনে নেয়ার জন্য বলছি। কেউ মানছে, কেউ মানছে না, একটা কাজে তো সবার সমর্থন আদায় করা সম্ভব না।’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘কর্মচারীদের ভয়ভীতি দেখানোর প্রশ্নই আসে না। আমি তাদের বোঝাচ্ছি। কেউ পদ-পদবি প্রত্যাশা ব্যক্ত করলে তাদের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি বিভিন্ন প্রকল্পে তাদের অন্তর্ভুক্ত করতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...