আজ ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১০ই ডিসেম্বর, ২০২৩ ইং

গাইবান্ধা সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুশান্ত কুমার দেবের কুকৃর্তির শেষ কোথায়?

বিশেষ প্রতিনিধি:  গাইবান্ধা সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের আলোচিত সমালোচিত সাবেক প্রধান শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রী ও অভিভাবকদের সাথে অশালীন আচরন করার প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করছিল ছাত্রীরা। যার ফলশ্রুতিতে স্কুলের ছাত্রী, অভিভাবক এবং সুধি সমাজের তোপের মুখে প্রধান শিক্ষককে বদলী করা হয় সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে। কিন্তু সেখানেও চারিত্রিক কোন পরিবর্তন আসেনি প্রধান শিক্ষক সুশান্ত কুমার দেবের।

তারই ধারাবাহিকতায় আজ সকালে প্রতিষ্ঠানের অন্যান্য শিক্ষক কর্মচারি উপস্থিত হবার আগেই প্রধান শিক্ষক তার কক্ষে অন্ধকারাচ্ছন্ন অবস্থায় একজন অল্প বয়সি মহিলাসহ খোশগল্প করা অবস্থায় পাওয়া যায়।

পরে সেখানে সংবাদ কর্মি উপস্থিত হলে তার উপর চড়াও হয় লম্পট প্রধান শিক্ষক। পরে ধিরে ধিরে অন্য শিক্ষকদের উপস্থিতি বাড়তে থাকলে প্রধান শিক্ষক  বিষয়টি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য সেই মেয়েটিকে কখনও তার মেয়ে আবার কখনো বন্ধুর বোন হিসেবে দাবি করছে।

মজার বিষয় হলো মেয়েটি আর কেউ নয়। তিনি প্রধান শিক্ষকের সাবেক কর্মস্থল গাইবান্ধা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের একজন শিক্ষিকা। তার নাম শাম্মি আকতার নুপুর। তিনি রাজশাহী জেলার বাসিন্দা।

আরো মজার বিষয় হলো প্রধান শিক্ষক বালিকা স্কুলে কর্মরত থাকাকালীন এই শিক্ষিকা নুপুরের সাথে অবৈধ সর্ম্পকের বিষয়টিও সকলের মুখেমুখে ছিল। শুধু তাই নয় এই শিক্ষিকাকে নিয়ে প্রধান শিক্ষক বিভিন্ন সময় বিভিন্ন অজুহাতে ঢাকায় গিয়ে বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে রাত্রীযাপন করেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে। এক কক্ষে রাত্রী যাপনের বিষয়টি অস্বীকার করলেও তাকে নিয়ে ঢাকা যাবার বিষয়টি স্বীকার করেছেন প্রধান শিক্ষক নিজেই।

সার্বিক বিষয় নিয়ে শিক্ষিকা নুপুরের সাথে কথা বললে তিনি কোন স্বদোত্তোর দিকে পারেননি। স্বদোত্তোর না দেয়ার কারনে প্রধান শিক্ষক সংবাদকর্মি এবং উপস্থিত অন্যান্য শিক্ষদের সামনে শিক্ষিকা নুপুরকে বকা ঝকা করেন।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...