আজ ১৫ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জানুয়ারি, ২০২৩ ইং

ইলিক্ট্রিক ডিভাইসেরর মাধ্যমে জুয়া খেলারত অবস্থায় পাঁচ জুয়াড়ী আটক

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: দিনে দিনে বিজ্ঞানের কল্যাণে প্রযুক্তির অগ্রগতি হয়েছে। নতুন উদ্ভাবিত প্রযুক্তি মানুষের দৈনন্দিন কার্যক্রম কে সহজ করেছে।বিভিন্ন অফিস আদালত, স্কুল-কলেজ ও গবেষণাগারে প্রযুক্তির ব্যাবহার বেড়েছে।এসব কিছুই মানব কল্যাণে ব্যাবহৃত হচ্ছে।

তবে এ প্রযুক্তি আবার সম্প্রতি মানুষ তার অকল্যাণেও ব্যাবহার করতে শুরু করেছে।রাজধানী ঢাকায় অর্ধযুগ পূর্বে প্রযুক্তি ব্যাবহারে জুয়া খেলা শুরু হলেও সম্প্রতি সেটা গ্রাম গঞ্জে ছড়িয়ে পড়েছে। গাইবান্ধার জুয়াড়ীরা সনাতন পদ্ধতির কার্ড খেলার পরিবর্তে আধুনিক পদ্ধতি বেছে নিয়েছে।

পূর্বে জুয়াড়ীরা ১৮ টাকায় কার্ডের বান্ডিল কিনতো আর সেই কার্ডে থাকতো হরতন, গোলাম, সাহেব, রাণীসহ বিভিন্ন ধরনের ৫১টি কার্ড(তাস)। তবে এখন গাইবান্ধার জুয়াড়ীরা সনাতন পদ্ধতির কার্ডের পরিবর্তে সংগ্রহ করেছে বড় মনিটর সম্বলিত ইলেট্রিক ডিভাইস ট্যাব আর এ ট্যাবের ভিতরেই তারা ডাউনলোড দিয়েছে হরতন,গোলাম, সাহেবসহ সহ ৫১টি কার্ডের সফটওয়্যার এবং এই ট্যাবেই চলছে একান্ন তাসের বাহান্ন খেলা।

এ আধুনিক প্রযুক্তিতে একান্ন তাসের বাহান্ন খেলারত অবস্থায় গাইবান্ধা থানা পুলিশের অভিযানে পাঁচ জুয়াড়ী আটক হয়েছে।

পলাশবাড়ী থানার অফিসার্স ইনচার্জের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ও তদারকিতে পলাশবাড়ী থানার একটি চৌকস টিম মঙ্গলবার(৭জুলাই) রাত ০৩ ঘটিকায় পলাশবাড়ী উপজেলার হোসেনপুর ইউনিয়নের লক্ষীপুরের মেরীরহাট নামক বাজার এলাকা হতে গ্রেফতারকৃত ৪নং আসামী ছামছুল আলমের চায়ের দোকানে জুয়া খেলা অবস্থায় পাঁচ জুয়ারীকে আটক করেছে পুলিশ।

আটককৃত জুয়াড়ীরা হলেন – উপজেলার দিগদারী গ্রামের সামাদের পুত্র মোঃ লেবু মিয়া(৩০) একই গ্রামের নূর হোসেনের পুত্র মোঃ ওয়াসিম শেখ(২২),
মৃত আবুল হোসেনের পুত্র মোঃ আলিম(৩৮),
উপজেলার পশ্চিম নারায়ণপুর গ্রামের মজিবর রহমানের পুত্র চায়ের দোকানদার মোঃ সামছুল আলম(৩৭),উপজেলার সাইনদহ এলাকার তজেব উদ্দীনের পুত্র মোঃ হারুন মিয়া(৪৭)।

এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে পলাশবাড়ী থানার অফিসার্স ইনচার্জ মাসুদার রহমান জানিয়েছেন
ইলিক্ট্রিক ডিভাইস ট্যাব এর সফটওয়ারের মাধ্যমে জুয়া খেলারত অবস্থায় এ পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে।পরবর্তীতে তাদের বিরুদ্ধে পলাশবাড়ী থানায় একটি জুয়া মামলা রুজু হয় এবং জুয়াড়ীদেরকে উক্ত মামলায় বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ্দ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...