আজ ২২শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ইং

কবরে চুমু দিলেন এরিক, জেয়ারতে কাঁদলেন বিদিশা- রংপুরের মানুষ চাইলে আমি রাজনীতিতে আসবো

রংপুর প্রতিনিধি: সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান প্রয়াত এইচ এম এরশাদের কবর জেয়ারত করতে গিয়ে অঝোরে কাঁদলেন তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী বিদিশা। সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রংপুরে এরশাদের কবর জেয়ারত ও ফাতেহা পাঠ করতে গিয়ে অঝর ধারায় কাঁদেন তিনি।

সকালে ঢাকা থেকে বিমানযোগে সৈয়দপুর বিমান বন্দরে নেমে সরাসরি রংপুরের দর্শনা এলাকার পল্লী নিবাস বাস ভবনে আসেন বিদিশা। এ সময় তার সঙ্গে ছেলে এরিখ এরশাদও ছিলেন। সেখানে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বিদিশা বলেন, আমি এরিখকে আপনাদের কাছে রেখে গেলাম।
সে এরশাদের একমাত্র সন্তান। সে শুধু আমার সন্তান নয়, রংপুরের সন্তান। এখন থেকে এরিখ রংপুরে আসবে। আপনারা তাকে দেখে রাখবেন। বিদিশা বলেন, রংপুরের মানুষ চাইলে আমি রাজনীতিতে আসবো, না হলে নয়। এ সময় বিদিশাকে অঝর ধারায় কাঁদতে দেখা যায়। এরিখ তার বাবার কবরে চুমু দিয়ে শ্রদ্ধা জানায়। এরিখ এরশাদ বলেন, অনেক বাধা ডিঙিয়ে কৌশলে ঢাকা থেকে মাকে নিয়ে রংপুরে এসেছি বাবার কবর জেয়ারত করতে।

এত দিন নানান বাধা-বিপত্তি ও হুমকি-ধমকির কারণে বাবার কবর জেয়ারত করতে পারিনি। কবরে একমুঠো মাটি দিতে পারিনি। এরিখ আরও বলেন, আমি রাজনীতি করতে আসিনি এবং রাজনৈতিক কথাও বলতে আসিনি। তবে আমার ইচ্ছা আমার মা রাজনীতিতে আসুক। আমার বাবা এরশাদের জায়গায় মা বিদিশা রাজনীতি করুক এটাই আমার কামনা।

তার সঙ্গে ছিলেন এরশাদ কল্যাণ ট্রাস্টের পরিচালনা মণ্ডলীর সদস্য এরিক এরশাদের লিগ্যাল অ্যাডভাইজার অ্যাডভোকেট কাজি রুবায়েত হাসান, বিএনএ-এর চেয়ারম্যান সেকেন্দার আলী মনি, ট্রাস্টের প্রেস সচিব ও বিদিশার একান্ত সহকারী সচিব সায়েম সাকলায়েন রাজিব, ডিএনএ’র মুখপাত্র মোস্তাফিজার রহমানসহ অনেকে। তবে কী কারণে তাদের হঠাৎ রংপুরে আসা তার সঠিক কারণ জানা যায়নি।

এ ব্যাপারে জাতীয় পার্টির নেতাদের বক্তব্য সঠিক কারণ তাদের জানা নেই। রংপুরে বিদিশা আসার ঘটনায় স্থানীয় জাপা নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক আলোচনা চলছে। জাপা মহানগর সভাপতি ও সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমানের সঙ্গে কথা বলার জন্য ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তিনি কল ধরেননি।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেস্টা করলে তিনিও ও ফোন ধরেন নাই। আর বিদিশা তার রংপুরে আসার কারণ পরে জানাবেন বলে জানিয়েছেন। সোমবার রাতেই তিনি সৈয়দপুর বিমানবন্দর থেকে রাত ৮টা ৩০ মিনিটে ঢাকার পথে রওনা হয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...