আজ ৩১শে আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই অক্টোবর, ২০২১ ইং

পলাশবাড়ীতে টাকা না থাকায় কোন প্রকার ভাতা জোটেনি বৃদ্ধা মাইয়ার কপালে

দুখীর দুংখ দেখে না বড় বড় লোকে গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী পৌর এলাকায় লিপি হোটেল এন্ড রেস্টুরেনট এর সামনে বসে ভিক্ষাবৃত্তি করছেন বৃদ্ধা মাইয়া বেগম। বৃদ্ধা মাইয়া বেগম (৭০) বয়সের ভারে ও অসুস্থ্যতায় নুয়ে গেছেন। চলতে ফেরতে পারছেন না একটু দাড়িয়ে থাকতেই হাপিয়ে উঠছেন। অসহায় মুখমন্ডলে অন্যের কাছে হাত পেতে ভিক্ষা চাচ্ছেন। স্বাধীনতার একমাস পরে স্বামীর মৃত্যুর পর হতে আজ অবধি অন্যের বাড়ীতে ঝিয়ের কাজ করে এরপর বয়সের ভারে নুয়ে পড়ায় দীর্ঘদিন হলো অন্যের নিকট হাত পেতে ভিক্ষাবৃত্তি করে মানববেতর জীবন যাপন করছেন।

মাইয়া বেগমের একটি মাত্র ছেলে সে নিজেও প্রতিবন্ধি বাড়ীতে অসহায় জীবন যাপন। বৃদ্ধা মাইয়ার ভিক্ষাবৃত্তির অর্থে চলে তারা দুইজন এ অসহায় পরিবারটি।মাইয়া বেগম বলেন, মেম্বারেরা ২ হাজার টাকা চায়, কোনটে পাম মুই টাকা, মোর টাকা নাই তাই মুই কোন ভাতাও আজও পাও নাই। কাক কোম কার কাছে বিচার চাম আল্লাহ্ ওরে বিচার করবি।

মাইয়া বেগম (৭০) পলাশবাড়ী উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের দূর্গাপুর গ্রামের মৃত গেন্দেলার স্ত্রী। স্থানীয়রা বলেন বৃদ্ধা মাইয়া বেগম প্রতিবন্ধি ছেলেকে নিয়ে মানববেতর জীবন করছেন। একটু সরকারি সহায়তা পেলে পরিবারটির অসহায়ত্ব দূর হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...