আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে জুন, ২০২১ ইং

চালু হল ডোর টু ডোর শপ

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: “আপনারা ঘরে থাকুন, দোকানই যাবে আপনার ঘরে। হ্যাঁ ভুল শোনেনি, বাজার করতে আপনাকে আর দোকানে যেতে হবে না। দোকানই যাবে আপনার ঘরে। ঘরে থাকা মানুষদের সুবিধার্থে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) শুরু করেছে ভ্রাম্যমাণ দোকান ‘ডোর টু ডোর শপ’।”

হ্যান্ড মাইকে এইভাবেই নিজেদের নতুন উদ্যোগের প্রচার করছিলেন চট্টগ্রামের কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন। করোনা ভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে সরকার ঘোষিত দশ দিনের সাধারণ ছুটিতে সাধারণ জনগণের বাজার করতে যাতে অসুবিধা না হয় বা ঘর থেকে বের হতে না হয় সেই লক্ষ্য এই ‘ডোর টু ডোর শপ’ প্রচেষ্টা বলে জানালেন এই ওসি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান বলেন, এটা নগরের ঘরবন্দী মানুষ, যারা বের হতে পারছে না, কোয়ারেন্টাইনে আছে তাদেরকে সেবা দেওয়ার জন্য আমাদের এই কর্মসূচী। চট্টগ্রামের ১৬ টি থানায় এই উদ্যোগ চালু হয়েছে বলে তিনি জানান।

যে নির্দিষ্ট বাজারদর আছে সেই দরেই মানুষ বাজার কিনতে পারবে জানিয়ে তিনি বলেন, এইটা লাভজনক কিছু না। আমরা জনগণকে সেবা দেওয়ার জন্যই এই কর্মসূচী হাতে নিয়েছি। প্রতিটা থানায় আলাদা টিম, গাড়ি এতে কাজ করছে।

তিনি আরো বলেন, বাজার করে দেওয়ার বাইরেও আমাদের নির্দিষ্ট হটলাইনে কল করে যে কেউ মেডিকেলে যেতে পারবে বা ডাক্তারি সুবিধা নিতে পারবে। এবং ডাক্তাররাও চাইলে কল করে আমাদের গাড়ি ব্যবহার করে হাসপাতালে যেতে পারবেন।

এই বিষয়ে পাঁচলাইশ থানার ওসি আবুল কাসেম ভুইয়া  বলেন, কল পেলেই জনজীবন সচল রাখতে চিকিৎসা, ওষুধ, নিত্যপণ্য, খাদ্যদ্রব্য আমরা বাসায় পৌঁছে দিচ্ছি। গতরাত এক বাবা গাড়ি না পেয়ে আমাদের থানায় কল করলে আমরা একটি শিশুকে হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছি। আজ সকাল থেকেই ডোর টু ডোর শপ চালু করেছি। আমাদের নির্দিষ্ট পুলিশ ফোর্স দিয়েই করোনা ভাইরাস মোকাবেলাসহ শহরের নিরাপত্তা আমরা নিশ্চিত করছি বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে নিয়ে কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন বলেন, আমরা নগররবাসীকে ঘরে থাকতে অনুরোধ করেছিলাম। কথা দিয়েছিলাম ঘরে বাজারও আমরা দিয়ে আসব। এই ডোর টু ডোর শপ সেটারই অংশ। আমাদের কমিশনার স্যারের নির্দেশে আজ সকাল থেকে কোতোয়ালি থানার তিন অফিসারের একটি টিম সার্বক্ষণিক এ কাজটি তদারকি করছেন।

তিনি বলেন, শুধু নিত্য প্রয়োজনীয় বাজার নয়, এর বাইরেরও যেকোনো প্রয়োজনে ঘরবন্দী মানুষ আমাদের সাহায্য চাইলে আমরা তা করে দিয়েয়ে আসবো। নির্দিষ্ট বাজারে দরে সবাইকে বাজার করে দিলেও হতদরিদ্রদের ক্ষেত্রে বিশেষ চ্যারেটি ফান্ড থেকে চাল, ডাল, তেল, লবণ দেওয়া হবে বলেও তিনি নিশ্চিত করেন।

সিএমপির ০১৪০০০৪০০৪০০ এই নাম্বারে কল করলে ডোর টু ডোর শপ এর সেবা পাওয়া যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...