আজ ১৮ই চৈত্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা এপ্রিল, ২০২৩ ইং

করোনা রোধে বরাদ্দকৃত সরকারি চাল চোরদের গ্রেফতার ও রেশন কার্ডের মাধ্যমে বিতরণের দাবিতে গাইবান্ধায় সিপিবির অবস্থান কর্মসুচি পালিত

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে সরকারী চাল চোরদের গ্রেফতার, রেশন কার্ডের মাধ্যমে নিম্ন মধ্যবিত্ত ও নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে ১০টাকা কেজির চাল রেশন কার্ডের মাধ্যমে বিতরণসহ বিভিন্ন অনিয়মের প্রতিবাদে বাংলাদেশের কমিউনিষ্ট পার্টি গাইবান্ধা জেলা কমিটির উদ্যোগে জেলার ৭টি স্থানে শারীরিক নিরাপদ দুরত্ব বজায় রেখে অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হয়। বৃহস্পতিবার একেই সাথে সকাল সাড়ে ১১টা থেকে সাড়ে ১২ টা পর্যন্ত এই অবস্থান কর্মসুচি চলে। গাইবান্ধা শহরের পার্টির জেলা কার্যালয়ে বিভিন্ন প্লাকার্ড নিয়ে নেতাকর্মীরা অবস্থান করেন। এছাড়া একইভাবে প্ল্যাকার্ড নিয়ে সদর উপজেলার দারিয়াপুরসহ সুন্দরগঞ্জ, সাঘাটা, ফুলছড়ির কঞ্চিপাড়া, পলাশবাড়ীর মেরিরহাটে একই সময়ে এ কর্মসূচি পালিত হয়। এসময় নেতৃবৃন্দ সাংবাদিকদের বলেন, দেশে করোনা ভাইরাস বৃদ্ধির সাথে সাথে করোনা নিয়ন্ত্রণে নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য সরকারী বরাদ্দকৃত চাল যেভাবে সরকারি দলসহ জনপ্রতিনিধিদের একাংশ চুরি করছে, তা রীতিমত লজ্জার, নেতৃবৃন্দ এসব চোরদের গ্রেফতার করে তাৎক্ষণিকভারে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানান। নেতৃবৃন্দ, বিশ্বব্যাপী এই সমস্যা সমাধানে রাজনীতি না করে চিকিৎসার সাথে সংশ্লিষ্ট ডাক্তারসহ সকল পেশাজীবি সংগঠন, রাজনৈতিক দল, সামাজিক সাংস্কৃতিক দলের সমন্বতিত উদ্যোগ গ্রহণ করার দাবি জানান। এসময় নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, করোনা ঠেকাতে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে, এতে করে নিম্ন আয়ের মানুষ হঠাৎ করে কর্মহীন হয়ে পড়েছে। লকডাউন কার্যকর করতে হলে এসব নিম্ন আয়ের মানুষের তালিকা করে রেশন কার্ডের মাধ্যমে কড়াকড়িভাবে শারীরিক দুরত্ব বজায় রেখে অথবা বাড়ি বাড়ি খাদ্য সামগ্রী পৌছাতে না পারলে লকডাউনসহ করোনা প্রতিরোধ কর্মসূচি কার্যকর হবে না। বক্তারা দীর্ঘ মেয়াদী এই করোনা রোধে জেলায় করোনা টেস্টিং ল্যাব স্থাপন করে পর্যাপ্ত টেস্টের ব্যবস্থাকরণ, চিকিৎসার সাথে সংশ্লিষ্ট ডাক্তার, নার্স, আয়া, পরিচ্ছন্নকর্মীসহ সকলকে পর্যাপ্ত পিপিইসহ সব ধরণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানান। জেলার বিভিন্নস্থানে উপস্থিত ছিলেন সিপিবি কেন্দ্রীয় সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য ও জেলা সভাপতি মিহির ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মুকুল,জেলা সিপিবি’র সাবেক সভাপতি ওয়াজিউর রহমান রাফেল, করোনা প্রতিরোধে গঠিত জেলা কন্ট্রোল রুমের সমন্বয়ক এ্যাডভোকেট মুরাদ জামান রব্বানী, জেলা নেতা মাহমুদুল গনি রিজন, তপন কুমার বর্মণ, জাহাঙ্গীর আলম, গোলাম রব্বানী মুসা, ময়নুল কবীর মন্ডল, আসোয়াদ আলী, যজ্ঞেশ্বর বর্মণ, রেহেনা বেগম, সাঘাটা উপজেলা সিপিবি’র সভাপতি রেজাউল করিম সুইট, সুন্দরগঞ্জে উপজেলা সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, আমিনুল ইসলাম পিপুল, পলাশবাড়ীতে উপজেলা নেতা সাজু মাস্টার, ফুলছড়ির কঞ্চিপাড়ায় শরীফুল ইসলাম শরীফ, রানু সরকার, জেলা ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি পঙ্কজ সরকার প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...