আজ ২০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা জুলাই, ২০২০ ইং

পরিচ্ছন্ন কর্মীকে থাপ্পর মেরে ক্ষমা প্রার্থনা ক্রিকেটার সাব্বিরের

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) পরিচ্ছন্ন কর্মী বাদশাকে পিটানের ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ ও ক্ষমা চেয়েছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার সাব্বির রহমান ও তার পরিবার। বাদশাও মন থেকে সাব্বিরকে ক্ষমা করে দিয়েছেন। গতকাল বিকেলে রাসিকের পরিচ্ছন্ন কর্মীকে চর-থাপ্পর মেরে নতুন করে বির্তকের জন্মদেয় বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্য সাব্বির রহমান।

কাউন্সিলর নিযামুল আযীম নিজাম ও পরিচ্ছন্ন কর্মী বাদশা জানান, বিকেলে ওই ঘটনার পর রাতে সাব্বিরের পরিবার তাদের সাথে যোগাযোগ করে এবং সাব্বিরের পক্ষে তাদের কাছে উদ্ভূদ্ধ পরিস্থিতির জন্য ক্ষমা চান। সাব্বির নিজেই ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে তার পরিবারের সদস্যদের কাউন্সিলর ও পরিচ্ছন্ন কর্মী বাদশার কাছে পাঠান বলে তারা জানান।

বাদশা জানান. সাব্বির তার ছেলের মতো, সে একটা ভুল করে ফেলেছে, যে যেহেতু দুঃখ প্রকাশ ও ক্ষমা চেয়েছে তার জন্য ওকে মন থেকে ক্ষমা করে দিয়েছি।

তাকে চর থাপ্পর দেয়ার ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে বাদশা বলেন, নগরীর বেলদার পাড়ায় গতকাল বিকেলে ময়লা নিচ্ছিলাম সাব্বিরের ফ্লাটসহ অন্যান্য বাসার। ওই সময় তাদের বাসার সামনে ময়লার গাড়ি রেখে কাজ করছিলাম। ওই ফ্লাটের ডেভেলপার সুমন ভাই আমাকে দেখে ডাকেন। সুমন ভাইয়ের কাছে যেতেই সাব্বির গাড়ি নিয়ে এসে হর্ন দিতে থাকেন।’ তিনি বলেন, দৌড়ে এসে ময়লার গাড়ি সরাতে একটু দেরি হওয়ায় সাব্বির গাড়ি থেকে নেমে বলেন- ‘তোর বাবার রাস্তা?’ তখন আমি বলি আপনার বাবার রাস্তা? এসময় সাব্বির আমার বুকের ওপরে জোরে আঘাত করে থাপ্পর মারে। এতে আমি বেশ ব্যথা পাই।’ এ সময় টহল পুলিশ এসে আমাদের থামায়। তবে সাব্বির রহমান প্রথম থেকেই দাবী করে আসছিল পরিচ্ছন্ন কর্মীর সাথে তার কথা কাটাকাটি হলেও চর থাপ্পর মারার কোন ঘটনায় ঘটেনি।

এবিষয়ে নগরীর ২১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযিম বলেন, সাব্বির ছোট মানুষ। রক্তের গরমে একটু ভুল করেছে। রাতেই সমঝোতা করে দিয়েছি।’

এর আগে রাজশাহী বিভাগীয় স্টেডিয়ামে দর্শক পেটানোর অভিযোগে ছয় মাসের জন্য জাতীয় দল থেকে বহিষ্কার হয়েছিলেন ক্রিকেটার সাব্বির রহমান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...