আজ ১৭ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩১শে জানুয়ারি, ২০২৩ ইং

পূর্বের সকল রেকর্ড পেছনে ফেলে ১০২জন নতুন করে করোনা রোগী সনাক্ত

ফরিদপুর প্রতিনিধি: পূর্বের সকল রেকর্ড পেছনে ফেলে ১০২জন নতুন করে করোনা রোগী সনাক্ত হয়েছে আজ। যা ফরিদপুর জেলায় ১দিনে এটাই সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা।

আর এ আক্রান্তের ফলে ফরিদপুর জেলায় করোনা রোগীর সংখ্যা হাজারের ঘরে প্রবেশ করলো। প্রতিদিনই ফরিদপুরে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যৃর নতুন নতুন রেকর্ড গড়ে চলেছে। আর এ রেকর্ড গড়ার ফলে গত ১৩ দিনে জেলায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৬৬৫জন। আর জেলায় মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ১০০০জনে। আর ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু বরন করেছে ৪জন। মোট মৃতের সংখ্যা দাড়িয়েছে ১৭ জনে।

ফরিদপুর জেলায় করোনা আক্রান্ত শুরুর পর থেকে চলতি মাসের ৩ তারিখ পর্যন্ত মোট করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিলো ৩৩৫ জন অথচ ১৩ দিনের ব্যবধানে জেলায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৬৬৫জন।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ পিসিআর ল্যাব সুত্র মতে, জেলায় নতুন করে ১০২ জন করোনয় আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে ফরিদপুর সদর উপজেলায় ৪৩ জন, নগরকান্দা উপজেলায় ৩ জন, সালথা উপজেলায় ১০ জন, সদরপুর উপজেলায় ২ জন, চরভদ্রাসন উপজেলায় ১ জন, ভাংগা উপজেলায় ১৪ জন, বোয়ালমারী উপজেলায় ১৪ জন, আলফাডাঙ্গা উপজেলায় ৬ জন, মধুখালী উপজেলায় ৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

গতকাল থেকে দেশ ব্যাপী জোন ভিত্তিক লক ডাউন শুরু হলেও ফরিদপুর জেলা রেড জোনের আওতায় পরেনি।তবে রেড জোনে না পরলেও জেলার ভাঙ্গা উপজেলার করোনা পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাওয়ায় ১৫ দিনের জন্য লকডাউন ঘোষনা করে উপজেলা প্রশাসন।এসময় উপজেলার ঔষধ ও খাবারের দোকান ব্যতিত সকল প্রকার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকারও কথা জানান উপজেলা প্রশাসন।

এদিকে ফরিদপুর সদর উপজেলার পৌর শহরের করোন পরিস্থিতি দিন দিন খারাপের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। প্রতিদিনই নতুন করে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে।ফলে পৌর শহরের সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বিকাল ৪টার পরিবর্তে দুপুর ২টা পর্যন্ত খোলা রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে।

তাছাড়া জেলায় নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের মাধ্যমে স্বাস্থ্য সচেতনতার জন্য জনগনকে সতর্ক করার পাশাপশি আর্থিকভাবে দন্ডিত করা হচ্ছে।

ফরিদপুর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুম রেজা জানান, ফরিদপুর পৌর এলাকা অত্যান্ত ঝুকিপূর্ন অবস্থায় রয়েছে। আর আজকের ৪৩জন আক্রান্তের ৯০শাতাংশ পৌরসভার বাসিন্দা।যার ফলে আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে জনগনকে সতর্ক করার পাশাপাশি স্বস্থ্য বিধি না মানার অভিযান শুরু হবে। এবং অতিদ্রুততার সাথে পৌর এলাকা লকডাউন করা হতে পারে বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...