আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুন, ২০২১ ইং

মিথ্যা-হয়রানীমূলক হত্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে ভুক্তভোগী পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

পলাশবাড়ী প্রতিনিধি : গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে মিথ্যা ও হয়রানীমূলক হত্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে ভুক্তভোগী পরিবারের এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত।
আজ ২২ অক্টোবর (মঙ্গলবার) পলাশবাড়ী পৌর শহরের উদয়সাগর গ্রামের নিজ বাড়ীতে সাদুল্লাপুরের মসজিদের ইমাম হত্যা মামলার আসামী সাহারুল মন্ডলের মা তাহের বেগমের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সাহারুল মন্ডলের ছোট ভাই ফরহাদ হোসেন মন্ডল।
লিখিত বক্তব্য জানান, আপনারা নিশ্চয়ই অবগত আছেন যে, গত ১৯ অক্টোবর ২০১৯, সকাল ১১টায় সাদুল্লাপুর উপজেলার গোবিন্দরায় দেবত্তর এলাকার একটি আম গাছ হতে ফাঁসিতে ঝুলন্ত অবস্থায় আবুল কালাম আজাদ নামের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় আমার ছেলে সাহারুল ইসলামসহ ৩ জনকে আসামী করে নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে হয়রানীমূলক একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে।
সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আরো জানান, আমার ছেলে সাহারুল মন্ডল একজন নম্র-ভদ্র, ব্যবসায়ী, হাট কালেকটর ও উদ্যোক্তা হিসেবে পরিচিত রয়েছে। সে কালীবাড়ী হাটে একটি গার্মেন্টেস্-এর দোকান ছাড়াও কালীবাড়ী কাঁচামাল হাটের একজন নিয়মিত কালেকটরের পাশাপাশি নিজস্ব গরু-ছাগলের খামার রয়েছে। সে সম্পুর্ণভাে সৎ উপার্জনের মধ্য দিয়ে ব্যবসা-বানিজ্য পরিচালনা করে আসছিল।

এদিকে নিহত ইমাম আবুল কালাম আজাদ ধার্মিক একজন মানুষ ছিলেন। সেই সুবাদে আমার ছেলের সাথে বন্ধুত্বের সুবাদে তিনি ৫ হাজার ধার স্বরূপ গ্রহণ করেন। দীর্ঘদিন টাকা প্রদান না করায় আমার ছেলে তার নিকট পাওনা টাকার জন্য ২দিন বাড়ী গিয়ে তাগিদ দিয়ে আসে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৯ অক্টোবর ২০১৯ আম গাছ থেকে ফাঁসিতে ঝুলানো অবস্থায় আবুল কালাম আজাদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনায় নিহতের পরিবার সম্পুর্ণ পরিকল্পিত ভাবে আমার ছেলে সাহারুলকে আসামী করে একটি হয়রানীমূলক মিথ্যা মামলা দায়ের করেন।

আমি নিজেও চাই রহস্যজনক এই হত্যার সুষ্ঠু বিচার হোক। পুলিশ প্রশাসন সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে ঘটনার রহস্য উদঘাটনসহ আপনাদের মাধ্যমে আমার ছেলের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের জন্য সংশ্লিষ্ট পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
উল্লেখ্য, গত ১৯ অক্টোবর শনিবার মসজিদের ইমাম আবুল কালাম আজাদের সাদুল্লাপুর উপজেলার গোবিন্দরায় দেবত্তর এলাকার একটি আম গাছ হতে ফাঁসিতে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এঘটনায় সুদ সংক্রান্ত বিষয়ের জেরে সাদুল্লাপুর থানায় ৩জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...