আজ ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জুন, ২০২১ ইং

 মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতা প্রদান ও অপরাধী সংশোধন পুনর্বাসন সভা

সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা সমাজসেবা বিভাগের উপ-পরিচালক মো. এমদাদুল হক প্রামানিক, জেলা কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক মাহবুবুল আলম, গাইবান্ধা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর সাবু, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ওয়াশিকার মো. ইকবাল মাজু, প্রবেশন অফিসার মো. নাজমুল হোসেন প্রমুখ।
সভায় গাইবান্ধা সদর উপজেলার ৭ জন ও ফুলছড়ি উপজেলার ১ জন মৃত মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী ও সন্তানদের নামে নতুন বরাদ্দকৃত সম্মানী ভাতা অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এছাড়া গাইবান্ধা সদর উপজেলার ১১, ফুলছড়ি উপজেলার ৪ ও পলাশবাড়ি উপজেলার ১ জন মৃত মুক্তিযোদ্ধার বরাদ্দকৃত ভাতা তাদের স্ত্রী ও সন্তানদের নামে প্রতিস্থাপন করা হয়। তদুপরি গাইবান্ধার ১ জন, পলাশবাড়ির ৩ ও ফুলছড়ি উপজেলার ৫ জন মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী ও সন্তানদের মধ্যে বরাদ্দকৃত ভাতা সমহারে বন্টনেরও সুপারিশ করা হয়। সেইসাথে ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের মৃত মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল গফুর সরকারের ওয়ারিশের নামে ভাতা বরাদ্দের সুপারিশ করা হয়।
এদিকে অপরাধী সংশোধন পুনর্বাসন সমিতির সভায় জেলা কারাগারে আটক মহিলা বন্দীদের সেলাই প্রশিক্ষণ বাস্তবায়নের উপর সর্বাধিক গুরুত্বারোপ করা হয়। এজন্য নতুন সেলাই মেশিন, সরঞ্জাম ও উপকরণ ক্রয় এবং কারাগার থেকে মুক্তিপ্রাপ্ত দুঃস্থ মহিলা কয়েদীকে সেলাই মেশিন প্রদানের বরাদ্দ অনুমোদন করা হয়। তদুপরি কারাবন্দীদের স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে সেলাই ও মোবাইল মেরামত প্রশিক্ষণ ব্যবস্থা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা এবং প্রশিক্ষক নিয়োগের অনুমোদন দেয়া হয়। সভায় কারাগার থেকে মুক্তিপ্রাপ্ত দুঃস্থ কয়েদীদের পুনর্বাসনের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় উপকরণ ও আর্থিক সহায়তা প্রদানের উপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...