আজ ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২০শে মে, ২০২৪ ইং

পল্লীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসী হামলায় এক শিক্ষার্থীসহ ৬ জন আহত : থানায় মামলা দায়ের

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীর পল্লীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে সন্ত্রাসী হামলায় এক শিক্ষার্থীসহ ৬জন গুরুতর আহতের ঘটনা ঘটেছে। এব্যাপারে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার হোসেনপুর ইউনিয়নের পল্লী শ্রীখন্ডি গ্রামের শাহ আলমের ছেলে হেলাল উদ্দিন গংদের সাথে একই গ্রামের শফিউল ইসলামের ছেলে মাহমুদুল ইসলাম শুভ’র পরিবারের মধ্যে পারিবারিক ও সামাজিক ছাড়াও আভ্যন্তরীন বিষয় নিয়ে চাপা ক্ষোভসহ মনোমালিন্য চলে আসছিল।

এরই জের ধরে ঘটনার দিন রোববার সকালে হেলাল তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিয়ে বসতবাড়ীর উঠানে দাড়িয়ে ছিল। এসময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষ মাহমুদুল ইসলাম শুভ গংরা পূর্বপরিকল্পিত লাঠি-সোটা, লোহার রড ও দেশীয় ধারালো অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে হেলালের পরিবারের উপর আকস্মিক সন্ত্রাসী হামলা চালায়। উপূর্যপরি এলোপাথাড়ি মারপিটে হেলাল ছাড়াও তার বোন ও ভাগ্নিসহ পরিবারের ৬ জনকে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে দ্রুত সটকে পড়ে।

স্থানীয়রা রক্তাক্ত আহতদের ঘটনাস্থল থেকে তাৎক্ষনিক উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। আহতরা হলেন শ্রীখন্ডি গ্রামের মৃত আলেক উদ্দিনের ছেলে শাহ আলম (৪৮) একই গ্রামের মৃত কাজেম উদ্দিনের ছেলে রোস্তম আলী (৪২) তার ছেলে ফয়সাল আহম্মেদ (২১), গোলাম মোস্তফার ছেলে মাজহারুল ইসলাম মিথেন (১৯), শাহ আলমের বড় বোন জহুরা বেগম (৫৫) ও জহুরা বেগমের মেয়ে শাপলা বেগম (২৮)।

এদিকে;  থানায় মামলা দায়েরের কয়েকঘন্টা যেতে না যেতেই প্রতিপক্ষ তাদের বিরুদ্ধে মামলা তুলে নিতে নানা ভয়ভীতি-হুমকি প্রদর্শন ছাড়াও হয়রানীর উদ্দেশ্যে তাদের বিরুদ্ধেও মামলা দায়েরের পায়তারা অব্যাহত রেখেছেন।

মামলার আসামী প্রতিপক্ষ গংরা এঘটনার আগেও বিভিন্ন সময় আহত বাদীপক্ষের পরিবারের প্রতি অহেতুক অকথ্য-অশ্রাব্য ও অশ্লীল ভাষায় গালমন্দসহ নানা ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছিলেন। এব্যাপারে আহত হেলাল উদ্দিন বাদী হয়ে এজাহার নামীয় ৮জন ছাড়াও অজ্ঞাত আরও ২/৩জনকে আসামী করে পলাশবাড়ী থানায় একটি মামলা (নং-৫, তাং-০৬/০১/২০২০) দায়ের করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...