আজ ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জুন, ২০২১ ইং

আদালতের আদেশ অমান্য করে পলাশবাড়ীতে বসতবাড়ী দোকানঘর ভাঙচুর

বিজ্ঞ আদালতের আদেশ অমান্য করে গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলা সদরে রংপুর-বগুড়া মহাসড়ক সংলগ্ন পশ্চিম পার্শ্বের বেশকিছু পাকা বসতবাড়ী ও দোকানঘর ভাঙচুর করেছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। অদ্যাবধি ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ না দেওয়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছে ভূক্তভোগী পরিবার গুলো।

জানা যায়, পলাশবাড়ী উপজেলা সদরের নুনিয়াগাড়ী মৌজার জেএল নং-৬৯, খতিয়ান নং-২০৩, দাগ নং-৪১, খতিয়ান নং-১৯৪, দাগ নং-৪৩, খতিয়ান নং-১২৯, দাগ নং-১৫৬, খতিয়ান নং-২২৯, দাগ নং-৪০। রংপুর-বগুড়া মহাসড়ক সংলগ্ন উক্ত খতিয়ান-দাগের জমির মালিকগণ পৈত্রিক ও ক্রয়সুত্রে শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোগদখল করে আসছিলেন। পরবর্তীতে উক্ত জমিতে সড়ক ও জনপথ বিভাগ একোয়ার দাবী করলে জমির মালিকগণ গাইবান্ধা বিজ্ঞ ১ম মুনসেফি আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন, মামলা নং- অন্য-৩২১/১৯৬৭।

পরবর্তীতে বিজ্ঞ আদালত ২২/০৫/১৯৬৯ইং তারিখে উক্ত খতিয়ান-দাগ ভূক্ত জমির উপর স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করত: বসতবাড়ী ও দোকান ঘর নির্মাণে শান্তিপূর্ণ ভাবে বসবাস করার রায় ও ডিক্রি প্রদান করেন। এদিকে, গত ৪ নভেম্বর ২০১৯ইং তারিখে সড়ক ও জনপথ বিভাগ বিজ্ঞ আদালতের আদেশ অমান্য করে উক্ত খতিয়ান-দাগের জমির ওপর নির্মিত সকল পাকা বসতবাড়ী ও দোকানঘর ভাংচুর করেন। এমনকি অদ্যাবধি জমির মালিকদের কোন ক্ষতিপূরণ না দেওয়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন ভূক্তভোগী পরিবার গুলো। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভূক্তভোগী জমির মালিকগণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...