আজ ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

উপ সহকারি কৃষি কর্মকর্তা নিয়োগে অনিয়মের প্রতিবাদে আন্দোলনের প্রস্তুতিতে গাইবান্ধার বঞ্চিতরা

কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের কর্তৃক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী আবেদনকারী প্রিলি ও রিটার্ন পরীক্ষায় উর্ত্তীন ও মৌখিক পরীক্ষার পর চুড়ান্ত ফলাফলে বঞ্চিত গাইবান্ধা জেলার ছাত্রছাত্রীদের অংশ গ্রহনে আজ ২৮ জানুয়ারী মঙ্গলবার বিকালে গাইবান্ধা পৌর পার্কে ৫১১৪ জন ভাইভা বোর্ডের জন্য মনোনীত ছাত্রছাত্রীদের নিয়োগের দাবীতে একদফা দাবী আদায়ে আন্দোলনের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। গত ২০১৮ সালে উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা (saao)পদে ১২০১০০০০৩৮১১০০৪২০১৭৮২৬ নং স্মারক এর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

এতে মোট ৫০ জেলার কৃষি ডিপ্লোমাধারীরা আবেদন করার সুযোগ পেয়েছিল।অন্য জেলাগুলোর জেলা কোটা খালি না থাকায় আবেদন করতে পারেনি।কিন্তু এসব জেলা থেকে মামলা করা হয়েছিল তাদের আবেদন করার সুযোগ পাওয়ার জন্য।কিন্তু তা সম্ভব হয়নি এতে নিয়োগ প্রক্রিয়া অনেক বিলম্বিত হয়েছিল।যাহোক ০২-০৮-২০১৯ তারিখ প্রিলিমিনারি পরীক্ষা হয়। তাতে মোট দশ হাজার ৩৯ জন প্রার্থী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়।তারপর ১৩-০৯-২০১৯ তারিখ লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় তাতে মোট পাঁচ হাজার একশ চৌদ্দ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হয়।

গত ১৮-১২-২০১৯ ইং তারিখ থেকে ১৪-০১-২০২০ ইং তারিখ পর্যন্ত ভাইভা পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ভাইভা পরীক্ষার পর সরকারি ছুটির দিন প্রাথমিকভাবে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের রোল নম্বর প্রকাশ করা হয় যা পূর্ববর্তী সার্কুলার এর তারিখ ও স্মারক নং এর সাথে কোন মিল নেই। পর পর দুবার ফলাফলের স্মারক ও সময় পরিবর্তন করেছে নিয়োগ কমিটি । এ নিয়োগে কিছু কিছু জেলায় অনেক বেশি প্রার্থী প্রাথমিকভাবে চাকরির জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। অনেক জেলায় নিয়োগ পাওয়া সংখ্যা নগন্য। নিয়োগ বঞ্চিতদের দাবি তাদের জেলা কোঠায় নিয়োগ / প্যানেল তৈরি করে নিয়োগ দেওয়া হোক।

নিয়োগ বঞ্চিতদের অনেকেই আছেন সরকারি চাকরিতে আর আবেদন করতে পারবেন না। এছাড়া যাদের বিভিন্ন কোঠায় নিয়োগ দেওয়া হয়েছে তারা সেব কোঠার উপযুক্ত নয়। এছাড়া নিয়োগে নানা অভিযোগ তুলেছে সারাদেশে বঞ্চিত পরীক্ষার্থীরা। এ নিয়োগে ভাইভা বোর্ডে মনোনীত ৫১১৪ জন প্রার্থীকে নিয়োগে একদফা দাবীতে আন্দোলন করছেন বঞ্চিতরা। এ আন্দোলনে অংশ গ্রহন করতে ও দাবী আাদায়ে ঐক্যবদ্ধ হতে গাইবান্ধা জেলার বঞ্চিত ছাত্রছাত্রীরা নিজেদের মধ্যে প্রস্তুতি সভায় আলোচনা করেন। এ আলোচনায় তারা একদফা দাবী আদায়ে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ায় অঙ্গিকার করেন। সারাদেশের ন্যায় উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা পদে গাইবান্ধা জেলার প্রার্থীরা ৯ বছর পর আবেদন করার সুযোগ পায়। আবেদন করেন প্রায় হাজারের অধিক প্রার্থী তবে শেষ পর্যন্ত ভাইভা বোর্ডের জন্য মনোনীত হন প্রায় ২ শতাধিক। জেলায় কোঠা ত্রিশের অধিক থাকলেও বিভিন্ন কোঠা ও সাধারণ কোঠায় নিয়োগ দেয়া হয় মাত্র ১০ হতে ১১ জনকে।

বর্তমান নিয়োগে জেলায় কতজনকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে জানাতে না পারলেও গাইবান্ধা জেলা কৃষি অফিসার মাসুদুর রহমান মাসুদ জানান,জেলা জুড়ে ২৫০ জন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা কর্মরত রয়েছেন। বর্তমান সময়ে জেলায় ৩৩ টি উপ সহকারি কৃষি কর্মকর্তা পদ শূন্য রয়েছে। উল্লেখ্য,সারাদেশের শূন্য পদ পুরুনে মৌখিক পরীক্ষায় মনোনীত ৫১১৪ জন প্রার্থীদের নিয়োগ প্রদানে বঙ্গবন্ধুকন্যা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রয়োজনীয় নির্দেশনা কমনা করেছেন গাইবান্ধা জেলাসহ সারাদেশের বঞ্চিত ছাত্রছাত্রীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...