আজ ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৯শে আগস্ট, ২০২২ ইং

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে ৫টি ইটভাটায় জরিমানা ৯ লক্ষ টাকা

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় জেলা প্রশাসকের লাইসেন্স ও পরিবেশের ছাড়পত্র ছাড়াই ইটভাটা স্থাপনে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা করা হয় ৯ লাখ টাকা। উপজেলার এলাকায় পরিবেশ অধিদপ্তরের দিনব্যাপী অভিযান চালিয়ে ৫টি অবৈধ ইটভাটায় পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ও অনুমোদন না থাকায় আগুন দিয়ে নিভিয়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার (৫ জানুয়ারি) ইটাভাটায় অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ মেজিস্ট্রেট মেজবাউল হোস

পরিবেশ অধিদপ্তরের ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ)আইন, ২০১৩ (সংশোধিত ২০১৯ এর ১৪ ধারায় পরিবেশগত ছাড়পত্র ও লাইসেন্স ব্যতিত ইট পোড়ানোর কারনে ওই ৫ টি ইটভাটার মালিককে ৯ লক্ষ টাকা জরিমানা ও ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় ইটভাটার আগুন নিভিয়ে দেয়া হয়।ভ্রাম্যমাণ অভিযানের নের্তৃত্ব দেন রংপুর বিভাগীয় পরিবেশ অধিদপ্তর কায্যালয়ের সহকারী পরিচালক মিহির লাল সরদার। এসময় অভিযান টিমে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা ফায়ার সার্ভিসের উপ- সহকারী পরিচালক আমিনুল ইসলামসহ ফায়ার সার্ভিসের কর্মী এবং আইন শৃংখলার কাজে সহযোগিতায় ছিলেন পলাশবাড়ী থানার পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা।

এ সময়ে উপজেলার ভগবর্তীপুর এলাকার ১. মোঃ সাইদ হাসানের মেসার্স এস এস ব্রিকসের ২ লাখ টাকা,নারায়ণপুর এলাকার ২.মোঃ শরিফুল ইসলামের মেসার্স এম এস ব্রিকসের ২ লাখ টাকা,হিজলগাড়ী এলাকার ৩. শ্রী গোকুল চন্দ্র রায়ের মেসার্স মা ব্রিকসের ২ লাখ টাকা, পশ্চিম গোপীনাথপুর এলাকার ৪.শ্রী গোপাল চন্দ্র রায়ের মেসার্স মা ব্রিকসের ২ লাখ টাকা,পশ্চিম গোপীনাথপুর এলাকার ৫.মোঃ সাইদুর রহমানের মেসার্স এম এস এম ব্রিকসের ১লাখ টাকা করে ৫টি ইটভাটা থেকে সর্বমোট ৯ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।প্রস্তুতকৃত কাঁচা ইট পানি দিয়ে নষ্ট করে দেওয়া হয়। জনবসতিহীন ফাঁকা জমিতে ইটভাটা তৈরির নিয়ম থাকলেও সকল আইন ভঙ্গ করে কৃষিজমি, জনবসতিপূর্ণর পাশেই এ সব ইটভাটা গড়ে উঠেছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...