আজ ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জুন, ২০২২ ইং

সাদুল্লাপুরে সাহারিয়া খান বিপ্লবকে একক মনোনয়ন প্রত্যাশী ঘোষণা

আসন্ন গাইবান্ধা-৩ (পলাশবাড়ী-সাদুল্লাপুর) আসনের উপনির্বাচনে সাদুল্লাপুর উপজেলা থেকে সংসদ সদস্য পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে সাদুল্লাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাহারিয়া খান বিপ্লবকে এককভাবে ঘোষণা করা হয়েছে।

বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সাদুল্লাপুর উপজেলা শাখার আয়োজনে স্থানীয় পাবলিক লাইব্রেরী অ্যান্ড  ক্লাব হলরুমে এক সংবাদ সম্মলেনের মাধ্যমে এই সম্ভাব্য প্রার্থীতা ঘোষণা করা হয়।

অনুষ্ঠিত সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোজহারুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন সহসভাপতি খন্দকার জিল্লুর রহমান, আব্দুল জলিল সরকার, শামসুজ্জোহা প্রামানিক রাঙ্গা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এসটি রুহুল আলম, জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য নুরুজ্জামান মন্ডল, আওয়ামী লীগ নেতা শ্রী রনজিৎ কুমার চন্দ্র, মনোরঞ্জন কুমার, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এজেডএম সাজেদুল ইসলাম স্বাধীন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোন্তেজার রহমান চঞ্চল প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে সহসভাপতি খন্দকার জিল্লুর রহমান তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত ২০১৯ সালের ২৭ ডিসেম্বর গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্লাপুর-পলাশবাড়ী) আসনের সংসদ সদস্য ডা. ইউনুস আলী সরকার মারা যান। ফলে এই আসনে অনুষ্ঠিত হবে উপনির্বাচন। এ নির্বাচনে সংসদ সদস্য পদে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে বা সম্ভাব্য প্রার্থী হওয়ার লক্ষ্যে আওয়ামী লীগ সাদুল্লাপুর উপজেলা শাখার এক বিশেষ সভা করা হয়েছে। এ সভায় সাদুল্লাপুর উপজেলা থেকে সাহারিয়া খান বিপ্লবকে একক মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

তিনি আরও জানান, বিগত ২০১৩ সালে অসহযোগ আন্দোলনের সময় জামায়াত-শিবিরের হাতে নির্যাতিত নেতা সাদুল্লাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব সাহারিয়ার খান বিপ্লব। উপজেলা ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে উঠে এসে তৃণমুলের নেতাকর্মীসহ এলাকার জনগণের পাশে থেকে দীর্ঘদিন থেকে উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন ও দলকে সুসংগঠিত করেছেন। এছাড়া জনগন তাকে সম্প্রতি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছেন। তাই আগামী উপ-নির্বাচনে তাকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হলে তার বিজয় শতভাগ নিশ্চিত এবং এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হবে বলে দলটির তৃণমূল নেতাকর্মীরা মনে করেন।

এক প্রশ্নের জবাবে সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি প্রভাষক আব্দুল জলিল জানান, এলাকাবাসী ও দলীয় তৃনমূল নেতাকর্মীদের সাথে যোগাযোগ আছে এমন প্রার্থীকে দল মনোনয়ন দিলে তিনি জয়লাভ করবেন। তাই তৃণমূল পর্যায়ের এ সিদ্ধান্ত কেন্দ্রে প্রেরণ করা হয়েছে এবং আপনাদের (গনমাধ্যম) সহায়তায় এই সিন্ধান্তের কথা কেন্দ্রের নেতাদের সামনে তুলে ধরতে আজকের এই সংবাদ সম্মেলন। আমরা আশা করছেন এই প্রক্রিয়ায় নির্বাচিত প্রার্থীকেই দলীয় মনোনয়ন দিলে দলে শৃঙ্খলা বজায় থাকবে।

সাদুল্লাপুর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুল ইসলাম স্বাধীন বলেন, নেতাকর্মী ও জনগনের পাশে থেকে এলাকার সার্বিক উন্নয়নে যে ব্যক্তি অতীতে ভুমিকা রেখেছে এমন নেতাকে যেন দল মনোনয়ন দেয়। আমাদের বিবেচনায় এমন প্রার্থী হলেন আলহাজ্ব সাহারিয়ার খান বিপ্লব।

উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোন্তেজার রহমান চঞ্চল বলেন, ভোটের পর যার সাথে দেখা করতে মাসের মাস অপেক্ষা করতে হয়। এমন প্রার্থীকে যেন দল থেকে মনোনয়ন দেয়া না হয়। আমরা চাই অতীতে নেতৃত্বের মধ্যে দিয়ে যিনি নেতা হওয়ার যোগ্যতা প্রমান করেছেন। তাকে যেন দল মনোননয়ন দেন। তিনি হলেন আলহাজ্ব সাহারিয়ার খান বিপ্লব।

এ অনুষ্ঠানে সাদুল্লাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মী ও প্রিণ্ট, অনলাইন এবং ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, জেলা নির্বাচন অফিসার মাহাবুবুর রহমান বলেন, সাদুল্লাপুরের ১১টি ও পলাশবাড়ী উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন নিয়ে ৩১, গাইবান্ধা-৩ সংসদীয় আসন। ভোটার সংখ্যা ৪ লক্ষ ১১ হাজার ৮৫৪ জন। এখনও এই আসনের উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়নি। তবে নিয়ম অনুযায়ী সঠিক সময়েই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...