আজ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

রাণীনগর হাসপাতালে সচেতনতামূলক মানচিত্র বিলবোর্ড উপকৃত হচ্ছেন সাধারন মানুষ

 নওগাঁর রাণীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্থাপন করা হয়েছে স্বাস্থ্য সচেতনতা মূলক মানচিত্র বিলবোর্ড। এছাড়াও হাসপাতালের প্রধান ফটকে স্থাপন করা হয়েছে মুজিব শতবর্ষ ক্ষণগণনার ডিজিটাল ঘড়ি। ভিতরে প্রবেশপথে শোভা পাচ্ছে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে রঙ্গিন বিলবোর্ড এবং বঙ্গবন্ধু ও তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত রঙ্গিন একাধিক বিলবোর্ড। নতুন স্থাপন করা এই সচেনতা মূলক মানচিত্র বিলবোর্ড থেকে এক নজরেই জানা যাবে উপজেলার কোন ইউনিয়নের কোন জায়গায় কোন স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র অবস্থিত সেই সম্পর্কে।
হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালে প্রতিদিনই উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মানুষরা সেবা নিতে আসেন। এছাড়াও বর্তমান সরকার প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের দ্বোরগড়ায় স্বাস্থ্য সেবা পৌছে দেওয়ার লক্ষ্যে প্রতিটি ইউনিয়নে স্থাপন করেছেন উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিক। কিন্তু গ্রামের অনেক মানুষই জানেন না যে তাদের নিজ নিজ এলাকার কোন জায়গায় জরুরী ও প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদানের জন্য কোন স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রটি অবস্থিত। সেই সব কেন্দ্রে কখন গেলে জরুরী ভাবে কোন চিকিৎসা সেবা পাওয়া যাবে এরকম অনেক কিছুই এখনো অনেকেরই অজানা রয়েছে। তাই সেই সব মানুষকে এই সব জরুরী তথ্যগুলো এক নজরে ও খুব সহজেই জানান দেওয়ার জন্য স্থাপন করা হয়েছে এই সচেতনতা মূলক মানচিত্র বিলবোর্ডটি। অনেক মানুষই হাসপাতালে প্রবেশ করার সময় এই বিলবোর্ডটিতে একবার চোখ বুলিয়ে জেনে নিচ্ছেন তাদের নিজ নিজ এলাকায় অবস্থিত স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র সম্পর্কে যাবতীয় তথ্যাদি। এতে করে উপকৃত হচ্ছে উপজেলার শত শত মানুষ। এই বিলবোর্ডে ৮টি ইউনিয়নের উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো বড় বড় রঙ্গিন ছবি দিয়ে দেখানো হয়েছে। বিলবোর্ড থেকে জানা যাবে ৪টি উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র, ৪টি পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের সেবা কেন্দ্র ও ২৩টি কমিউনিটি ক্লিনিকের অবস্থান। সেই সব কেন্দ্রে যেতে হবে কেমন করে এরকম অনেক অজানা তথ্য জানা যাবে এই মানচিত্র বিলবোর্ড থেকে।

উপজেলার বড়গাছা গ্রামের বাবুল চন্দ্র বলেন, আগে আমি জানতাম না যে আমার গ্রামেরই রয়েছে ১টি উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিক। সেখানে গেলেও যে জরুরী বিষয়ে চিকিৎসা সেবা ও ওষুধ পাওয়া যায় তা আমার জানা ছিলো না। কিন্তু হাসপাতালে এসে এই বিলবোর্ড দেখে আমার গ্রামের সেই স্বাস্থ্য কেন্দ্রের অবস্থানসহ অন্যান্য বিষয় সম্পর্কে জানতে পারলাম। এতে করে আমি অনেক উপকৃত হলাম। এই সচেতনতা মূলক মানচিত্র বিলবোর্ড থেকে আমার মতো শত শত মানুষ উপকৃত হবে বলে আমি আশাবাদি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: কেএইচএম ইফতেখারুল আলম খাঁন (অংকুর) বলেন, বর্তমান সরকার প্রত্যন্ত গ্রামের সাধারন মানুষদের দ্বোরগড়ায় স্বাস্থ্য সেবা পৌছে দেওয়ার লক্ষ্যে প্রতিটি ইউনিয়নে স্থাপন করেছেন উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো। কিন্তু এই সব স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলো সম্পর্কে প্রত্যন্ত এলাকার অনেক মানুষই তেমন কিছুই জানেন না। কিন্তু স্থাপন করা এই সচেতনতা মূলক মানচিত্র বিলবোর্ড থেকে খুব সহজেই উপজেলার উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র, পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিক সম্পর্কে জানতে পারবেন। তিনি আরো বলেন স্বাস্থ্য খাতে বর্তমান সরকারের গ্রহণ করা ভিশন সফল করার লক্ষ্যে সরকারি হাসপাতাল সম্পর্কে সাধারন মানুষদের মাঝে পজেটিভ ধারনা সৃষ্টি ও হাসপাতালে এসে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা গ্রহণে আগ্রহী করার লক্ষ্যেই আমি নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। তারই ধারাবাহিকতায় এই বিলবোর্ডটি নিজ উদ্দ্যেগে স্থাপন করেছি। আগামীতেও হাসপাতালের উন্নয়ন কল্পে ও উন্নত সেবা প্রদানের লক্ষ্যে এই ধরনের কর্মকান্ড আরো বাস্তবায়ন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...