আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২১ ইং

এরশাদের পল্লীনিবাসে হট্টগোল, পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

রংপুর প্রতিনিধি:  রংপুরের পল্লীনিবাসে সাংসদ রাহগির আল মাহি সাদ এরশাদের ঈদ পরবর্তী মতবিনিময় সভায় হট্টগোলের ঘটনা ঘটেছে। এতে জড়িত থাকার অভিযোগে দলের এক নেতাকে পুলিশ আটক করেছে। বিদ্যমান এই পরিস্থিতিতে মহানগর জাতীয় পার্টি ও এরশাদপুত্র রাহগীর আল মাহী সাদ পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

সংবাদ সম্মেলন থেকে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবিসহ আটক নেতাকে ছেড়ে দিতে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি ও সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা।

অন্যদিকে সাদ এরশাদ অভিযোগ করেছেন, ডিও লেটারে (চাহিদাপত্র) স্বাক্ষর না করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে মতবিনিময় সভায় হট্টগোল করে তাকে ও তার স্ত্রীকে লাঞ্ছিত করা হয়েছে। এঘটনায় স্থানীয় নেতাদের ইন্ধন রয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

বুধবার (৩ জুন) দুপুরে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলনে করে হট্টগোলের ঘটনায় পক্ষে–বিপক্ষে এসব অভিযোগ তুলে ধরা হয়।

দুপুরে নগরির সেন্ট্রাল রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি ও সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। তিনি অভিযোগ করেন, বহিরাগত ও ভাড়াটে গুন্ডাদের সাথে নিয়ে রংপুরে রাজনীতি করছেন সাংসদ সাদ এরশাদ। তার লেলিয়ে দেয়া বাহিনী ২৭ নম্বর ওয়ার্ড জাপার সাধারণ সম্পাদক টিপু সুলতান ওরফে রংপুরীকে মারধর করেছে। অন্যায় ভাবে তাকে পুলিশে সোপর্দ করে ঘটনা ভিন্নখাতে প্রভাবিত করতে চেষ্টা করছে।

ওই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তসহ আটক নেতাকে ছেড়ে দিতে ২৪ ঘন্টা সময় বেধে দেন সিটি মেয়র মোস্তফা। একই সাথে দ্রুত এর সুরাহা না হলে বৃহত্তর কর্মসূচী দেয়ার হুশিয়ারী দেন তিনি। সংবাদ সম্মেলন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে নগরির গুরুত্বপূর্ণ প্রদক্ষিণ করে জাপার নেতা-কর্মীরা।

অন্যদিকে বেলা আড়াইটায় দর্শনার পল্লীনিবাসে পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় পার্টির যুগ্ম মহাসচিব ও সংসদ সদস্য রাহগির আল মাহি সাদ এরশাদ জানান, ঈদের পর মঙ্গলবার (২ জুন) সন্ধ্যায় নেতা-কর্মীদের নিয়ে বৈঠক করছিলাম। সেখানে ডিও লেটারে স্বাক্ষর না দেয়ায় তাকে ও তার স্ত্রীকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে ও ভয়ভীতি দেখিয়ে লাঞ্ছিত করা হয়। এসময় নিজের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন এরশাদপুত্র। বলেন, রংপুরের উন্নয়ন বঞ্চিত করতে তার দলের সুবিধাবাদী নেতাকর্মীরা পরিকল্পিত ভাবে তার ওপর হানলা চালিয়েছে। বাবা এরশাদের শুনাম খুন্ন করতে তারা মরিয়া হয়ে উঠেছেন। এরশাদ ও রংপুরের পুত্রবধুকেও তারা লাঞ্চিত করেছেন। স্ত্রী মুহিমা এরশাদ অভিযোগ করেন, রংপুরের পুত্রবধু ও এমপি সাদ এরশাদের পত্নী হিসাবে তো দূরের কথা একজন নারী হিসাবে তিনি মর্যাদাহীন হয়েছেন। হামলাকারী তাকে শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করেছেন। পরনের কাপর জোর করে টেনে ছিরে ফেলেছেন। তিনি এর সুসঠু বিচার দাবি করেন।

এদিকে আটকের বিষয়ে মেট্রোপলিটন পুলিশের তাজহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ রোকনুজ্জামান জানান, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জাপা নেতা টিপু সুলতানকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (২ জুন) সন্ধ্যায় পল্লীনিবাসে ডিও লেটারে স্বাক্ষর না করায় রংপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য রাহগির আল মাহি সাদ এরশাদের ওপর হামলার চেষ্টার অভিযোগে স্থানীয় নেতা টিপু সুলতানকে আটক করে তাজহাট থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। এনিয়ে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা পল্লী নিবাসের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। এই বিক্ষোভ মধ্যরাত পর্যন্ত চলে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পল্লীনিবাস এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...