আজ ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

শেখ হাসিনা-মমতা একসাথে ইডেনে ঘণ্টা বাজাবেন

আগামী ২২ নভেম্বর কলকাতার ঐতিহ্যবাহী ইডেন গার্ডেন্সে প্রথমবারের মতো দিবারাত্রির টেস্টে ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ওই দিন ঐতিহ্যবাহী ঘণ্টা বাজিয়ে ম্যাচের উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গতকাল শনিবার ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের (সিএবি) সচিব অভিষেক ডালমিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) নয়া প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলির আমন্ত্রণে ইডেনের ওই ঐতিহাসিক টেস্ট দেখতে যাবেন শেখ হাসিনা। তবে শুরুতে অবশ্য না করেছিলেন মমতা। কিন্তু পরে বিসিসিআই প্রধানের অনুরোধে রাজি হন তিনি। সম্প্রতি ভারতীয় গণমাধ্যমকে সেই কথা নিজেই জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী।

মমতা বলেন, ২২ নভেম্বর ইডেনে ভারত-বাংলাদেশ দিন-রাতের টেস্ট শুরু হবে। ওই দিন বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী মাঠে থাকবেন। সৌরভ আমাকেও যাওয়ার অনুরোধ করেছে। আমি তার প্রস্তাব ফেলতে পারিনি। সেদিন সেখানে সশরীরের উপস্থিত থাকব।

এছাড়া ভারত-বাংলাদেশের ঐতিহাসিক লড়াই প্রত্যক্ষ করার নিমন্ত্রণ পেয়েছেন কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান শচীন টেন্ডুলকার, রাহুল দ্রাবিড়সহ জীবিত প্রায় সব ভারতীয় অধিনায়ক। প্রথম টেস্ট খেলা বাংলাদেশের ক্রিকেটাররাও উপস্থিত থাকবেন।ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সেখানে টেনে আনার চেষ্টা করছেন সৌরভ।

সেই টেস্ট স্মরণীয় করে রাখতে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছে সিএবি। এ টেস্ট ঘিরে ব্যাপক আয়োজন করছেন সিএবি কর্তারা।অতিথি অ্যাপায়নে রাজকীয় মধ্যাহ্নভোজনের আয়োজন করছেন তারা। তাতে থাকছে ৫০ পদের খাবার।

এছাড়া শেখ হাসিনাকে উপহার দেয়ার জন্য আন্তর্জাতিকমানের বিশেষ পোশাক প্রস্তুতকারককে দিয়ে বানানো হচ্ছে ডিজাইনার শাড়ি। সঙ্গে থাকবে শাল। এছাড়া বাংলার ঐতিহ্য মেনে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে দেয়া হবে বিশ্ব বাংলার নানা উপহার।

বোর্ড প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর মাত্র কয়েক দিনের মধ্যে বাংলাদেশ ও ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টকে দিন-রাতের টেস্ট খেলতে রাজি করান সৌরভ। এটি ছিল প্রথম চমক। ম্যাচ আয়োজনে তুমুল জাঁকজমক করে দ্বিতীয় চমকটা দিতে চাচ্ছে সিএবি।

মুখ্য উদ্দেশ্য- টেস্ট থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়া দর্শকদের পাঁচ দিনের ফরম্যাটে মাঠে ফেরানো। ইতিমধ্যে খুশি হওয়ার উপলক্ষ পেয়ে গেছেন সৌরভ। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, ইতিপূর্বে অনলাইনে টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। বিক্রির হার আশাতীত ভালো। কয়েক ঘণ্টাতেই প্রায় সব টিকিটই বিক্রি হয়ে গেছে।

এ টেস্টের টস হবে সোনার মুদ্রায়। এজন্য নামি গহনা প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান কাজ করছে। অভ্যাগতদের স্মরণিকা হিসেবে দেয়া হবে রূপার মুদ্রার। ৬০টি বিশেষ টাইও তৈরি করা হচ্ছে ভিভিআইপি অতিথিদের জন্য। সব মিলিয়ে বাস্তবিক অর্থে মাসের শেষে ঐতিহাসিক ঘটনার সাক্ষী হতে চলেছে টেস্ট ক্রিকেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...