আজ ২৬শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৯ই জুন, ২০২১ ইং

ক্ষমতা না থাকলে কুপি জ্বালিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না বসন্তের কোকিলদের -ওবায়দুল কাদের

দলের দুঃসময়ে যারা পাশে ছিলেন তাদের মূল্যায়ন করার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয়, সেদিকে খেয়াল রাখুন। আওয়ামী লীগে সেশনজট হয়ে গেছে। এখন ছাত্রলীগের অনেক নেতা বসে আছে। তাদের মধ্য থেকে ক্লিন ইমেজ এবং ফ্রেশ মুখদের দলে জায়গা করে দিতে হবে। দলের মধ্য থেকে দূষিত রক্ত বের করে দিয়ে শুদ্ধ রক্ত রাখতে হবে।

 

তিনি বলেন, বসন্তের কোকিলদের দলে ঠাঁই দেবেন না। ক্ষমতা থেকে চলে গেলে তাদের কুপি জ্বালিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না। বসন্তের কোকিল, সুবিধাবাদী, মাদক ব্যবসায়ী, দুর্নীতিবাজ, টেন্ডারবাজ, চাঁদাবাজ ও ভূমি দখলকারীদের না বলুন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ শুদ্ধি অভিযানকে সমর্থন করুন।

আজ মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) দুপুরে রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে রংপুর জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন ও কাউন্সিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে এসব কথা বলেন তিনি।

দলীয় নেতাকর্মীদের ক্ষমতার দাপট না দেখানোর আহবান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ মানে ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়ে সৃষ্টির শ্লোগান। দুঃসময় মোকাবেলার নাম আওয়ামী লীগ। সব দুঃসময়ের বিরুদ্ধে দুর্যোগের বিরুদ্ধে লড়াই করে আওয়ামী লীগ আজ ক্ষমতায়।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে, গণতন্ত্রকে বাঁচাতে, উন্নয়নকে বাঁচাতে শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রাখতে হবে। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, হাই থিংক, সিম্পল লিভিং। এ নীতিতে চলতে হবে। ক্লিন ইমেজের যে কোনও ব্যক্তির জন্য শেখ হাসিনার দরজা সব সময় খোলা। আসুন আওয়ামী লীগে যোগ দিন। আওয়ামী লীগের প্রতি মুখ ফিরিয়ে নেবেন না।

জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মমতাজ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহমান, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, রংপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য ডিউক চৌধরীসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা।

এর আগে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। নগরীর বিভিন্ন এলাকাসহ জেলার সব উপজেলা থেকে হাজার হাজার নেতাকর্মী সম্মেলনে যোগদান করেছেন।

তিনি বলেন, আজ সুসময় আছে। এই সুসময় চিরদিন নাও থাকতে পারে। মনে রাখবেন যে, ক্ষমতা আছে- এ ক্ষমতার দাপট দেখালে ক্ষমতা চিরদিন নাও থাকতে পারে। ক্ষমতা চিরদিন থাকে না। ক্ষমতা একসময় চলে যাবে। ক্ষমতার দাপট কেউ দেখাবেন না। বিনয়ী থাকবেন।

সেতুমন্ত্রী আরও বলেন, এক সময় রংপুরের মানুষ মঙ্গাকবলিত ছিল। প্রধানমন্ত্রী সেই মঙ্গাকে জাদুঘরে পাঠিয়েছেন। রংপুরকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ব্যাপক উন্নয়নের পরিকল্পনা রয়েছে। বগুড়া থেকে চার লেনের কাজ শুরু হয়েছে। রংপুর থেকে বুড়িমারি বাংলাবান্দা সড়ক করা হবে। গোটা উত্তরাঞ্চলের সমস্ত মহাসড়ক চার লেনের আওতায় আনা হবে। রংপুর জেলার ৯৪ ভাগ মানুষ বিদ্যুত সুবিধার আওতায় এসেছে। দ্রুত শতভাগ বিদ্যুৎ নিশ্চিত করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...