আজ ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

সড়ক দুর্ঘটনায় ৯ জন নিহত এর মাঝে সাত জনই মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায়

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় ৯ জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে নওগাঁ ও সিরাজগঞ্জে এক এএসআইসহ দুই কনস্টেবল রয়েছেন। দুর্ঘটনায় নিহত ৯ জনের সাত জনই মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার শিকার।

ধামইরহাট (নওগাঁ) : ধামইরহাটে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটরসাইকেল গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের এএসআই বাশির ও ডিবির সদস্য মনির নামে দুই জন নিহত হয়েছেন। তাদের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায়। উপজেলা আগ্রাদ্বিগুন বাজার এলাকায় বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। থানার ওসি জাকিরুল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন। ডিবির ওসি কে এম শামছুদ্দিন জানান, আগ্রাদ্বিগুন রাজার এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে যাচ্ছিলেন তারা। রাতের অন্ধকার ও কুয়াশায় হয়ত রাস্তা ঠিকমতো দেখতে না পেরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নন্দীগ্রাম (বগুড়া) : নন্দীগ্রামে দুই মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে সাইদুর রহমান (২৮) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। এ সময় অপর দুই আরোহী লিটন ও শিমুল আহত হয়েছেন। সাইদুর রহমান বগুড়ার নাটাইপাড়ার জাহিদুল ইসলামের ছেলে। বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে বগুড়া-নাটোর মহাসড়কের নন্দীগ্রাম মহিলা কলেজ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নন্দীগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা রতন কুমার দেবনাথ এ তথ্য জানান।

 তাড়াশে দুই মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে রুবেল হোসেন (২৩) নামে এক পুলিশ কনস্টেবল নিহত হয়েছেন। গতকাল দুপুর ১২টার দিকে তাড়াশ-রানীরহাট আঞ্চলিক সড়কের বেড়খালি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। কনস্টেবল রুবেল হোসেন বগুড়া জেলার হাইওয়ে পুলিশে কর্মরত ছিলেন। সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ মথুরাপুর গ্রামের আলতাফ হোসেন মাস্টারের ছেলে রুবেল স্ত্রীর জন্য বই কিনে কর্মস্থল বগুড়া থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। এ দুর্ঘটনায় আরো দুই ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়েছেন।

 রংপুর-ঢাকা মহাসড়কের যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ট্রাক চালক ও যাত্রীবাহী বাসের সুপারভাইজার নিহত হয়েছেন। এতে প্রায় ১৭ জন বাস যাত্রী আহত হয়েছেন। রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার বড়দরগা নামক স্থানে গতকাল ভোরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, রংপুর মহানগরীর ট্রাক চালক আব্দুর রহমান (৪৮) ও বগুড়া মিশিন ধারা এলাকার সাত্তার শেখের ছেলে বাসের সুপারভাইজার সাদ্দাম হোসেন (৩৫)। ঘটনাস্থলেই সাদ্দাম নিহত হন। চালক আব্দুর রহমানকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মত্যু হয়। পীরগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন এ তথ্য জানান।

 ফকিরহাটে খুলনা-মংলা মহাসড়কে একটি নষ্ট টেম্পুকে দড়ি দিয়ে বেঁধে অন্য একটি টেম্পু নিয়ে যাচ্ছিল। পিলজংগ গ্রামের তুষ মিলের সামনে মোড় ঘোরার সময় দ্রুত গতিতে আসা একটি মোটরসাইকেলের দুই আরোহী ঐ দড়িতে বেঁধে মাথা বিছিন্ন হয়ে যায়। গতকাল বিকাল পৌনে ৫টায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ওসি মো. রবিউল ইসলাম জানান, ৯ বন্ধু মোংলা বন্দর এলাকায় বেড়াতে আসেন। বিকালে বাড়ি ফেরার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, যশোরের মাহিদিয়া গ্রামের আনারুল ইসলামের পুত্র তারিকুল ইসলাম লিটন (৩০) ও একই জেলার কৃষ্ণাবাটিয়া গ্রামের আলমগীর হোসেনের পুত্র তুহিন শেখ (২৯)। কাটা টেম্পু দুটিকে জব্দ করা হলেও চালক পালিয়েছে।

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ): গফরগাঁওয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় মো. শাহজাহান মিয়া (৪০) নামে এক যুবলীগ নেতা নিহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটে গতকাল সকালে উপজেলার সান্দিয়াইন গ্রামে বুলবুলের বাজার সংলগ্ন এলাকায়। উপজেলার বখুরা গ্রামের দুলাল উদ্দিনের ছেলে ও যশরা ইউনিয়ন ৫ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ম-সম্পাদক মো. শাহজাহান সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মোটরসাইকেল যোগে খামারে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনার শিকার হন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...