আজ ১০ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জুন, ২০২১ ইং

পরাশক্তি আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল ম্যাচ মানেই উত্তেজনা

বিশ্ব ফুটবলের পরাশক্তি আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল ম্যাচ মানেই উত্তেজনা। সর্বশেষ এই দুদল মুখোমুখি হয়েছিল কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে। সেবার আর্জেন্টিনাকে ২-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিল স্বাগতিক ব্রাজিল। আর ফাইনালে পেরুকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল তিতের শিষ্যরা।

কোপা আমেরিকায় সেদিন ব্রাজিলের কাছে হার যেন জমানো ক্ষোভ ছিল স্কালোনির শিষ্যদের। তাই তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়েই সুযোগটা কাজে লাগিয়ে দিলেন শীর্ষ আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেই মেসি। মাঠে নেমেই ম্যাচের ১৩ মিনিটের মাথায় প্রতিপক্ষের জালে ঢুকিয়ে দেন বল।

সৌদি আরবের কিং সাদ ইউনিভার্সিটি স্টেডিয়ামে গতকাল শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাত ১১ টায় মুখোমুখি হয় ল্যাতিন আমেরিকার দেশ দুটি। সেখানেই গোল করে প্রতিশোধ নিলেন কোপা হারের। মেসির একমাত্র গোলে শেষমেষ পরাস্ত হতে হয় সাম্বাদের।

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মহানায়কের ভূমিকায় মেসির ফেরাটা যেন কাল হয়ে দাঁড়ায় প্রতিপক্ষ ব্রাজিলের। মেসির ওই গোলেই ১-০ তে শেষ হয় ম্যাচ।  তবে ম্যাচে ব্রাজিলের দলে ছিলেন না চোটে পড়া নেইমার। ৪-৩-৩ ফরমেশনে ব্রাজিল কোচ শুরুর একাদশে মাঠে নামান আলিসন, দানিলো, মিলিতাও, থিয়াগো সিলভা, সান্দ্রো, আর্থার, ক্যাসেমিরো, লুকাস পাকুয়েতা, গ্যাব্রিয়েল জেসুস, রবার্তো ফিরমিনো, উইলিয়ানকে। আর আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্কালোনি ৪-২-২ ফরমেশনে মাঠে নামান আনদ্রাদা, ফিউথ, পেজ্জেলা, অটামেন্ডি, তাগলিয়াফিকো, ওকাম্পোস, ডি পল, পারেদেস, লো সেলসো, মেসি, মার্টিনেজকে।

ম্যাচের দশম মিনিটে পারেদেসের ফাউলের কারণে পেনাল্টি পায় ব্রাজিল। তবে, স্পটকিক থেকে স্কোর করতে ব্যর্থ হন ম্যানসিটির তারকা গ্যাব্রিয়েল জেসুস। তার নেওয়া শটটি পোস্টের বাইরে কানায় লেগে চলে যায়। ১৩ মিনিটের মাথায় পেনাল্টি লাভ করে আর্জেন্টিনা। মেসিকে অবৈধ বাধা দেন সান্দ্রো। মেসি শট নিলেও তা থেকে গোল আদায় করে নিতে পারেননি। ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক আলিসন বল রুখে দিলেও নিজের নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি। আলতো টোকায় দ্বিতীয় শটে আলিসনকে ফাঁকি দিয়ে গোল করেন মেসি। প্রথমার্ধের বাকি সময়ে আর কোনো গোল না হলে ১-০ গোলে লিড নিয়ে বিরতিতে যায় আর্জেন্টিনা। বিরতির আগে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ পেয়েছিলেন মেসি। তার দুর্বল শট এবার ঠিকঠাক রুখে দেন ব্রাজিল গোলরক্ষক।

৬৬তম মিনিটে মেসির দারুণ একটি ফ্রি-কিকে বল শেষ মুহূর্তে নিচু হয়ে ক্রসবার ঘেঁষে জালে জড়াতে যাচ্ছিল। লাফিয়ে কোনোমতে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান আলিসন। ১০ মিনিট পর হের্মান পেস্সেইয়ার বুলেট গতির শটও কর্নারের বিনিময়ে রুখে দেন ব্রাজিল গোলরক্ষক।

কোপা আমেরিকার সেমি-ফাইনালে ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হেরে শিরোপা স্বপ্ন ভেঙে ছিল মেসি ও তার দলের। এবারের লড়াইটা কোনো প্রতিযোগিতামূলক ফুটবল নয়, তারপরও চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বিপক্ষে জয়ের মাহাত্ম্য সবসময়ই বিশেষ কিছু।

জুলাইয়ে ব্রাজিলের কাছে ওই হারের পর থেকে এখন পর্যন্ত অপরাজিত আর্জেন্টিনা। চারটিতে জিতেছে, ড্র করেছে দুটি। জয়-পরাজয়ের পরিসংখ্যানের চেয়েও উল্লেখযোগ্য হলো, শেষ তিন ম্যাচে আর্জেন্টাইনদের নজরকাড়া পারফরম্যান্স। অক্টোবরে জার্মানির বিপক্ষে দুই গোলে পিছিয়ে পড়ে দ্বিতীয়ার্ধে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে সমতায় করেছিল দলটি। পরের ম্যাচে একুয়েডরকে উড়িয়ে দিয়েছিল ৬-১ গোলে। আর এবার ব্রাজিলের বিপক্ষে এই জয়।

অন্যদিকে, কোপা আমেরিকা জয়ের পর থেকে যেন জিততেই ভুলে গেছে ব্রাজিল। এই নিয়ে টানা পাঁচ ম্যাচে জয়শূন্য রইলো তারা। এর মধ্যে হেরেছে দুটিতে, ড্র তিনটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...