আজ ১০ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জুন, ২০২১ ইং

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব অবহেলার কারণে শহরের ফৌজদারি এলাকায় নতুন বাইপাস সড়কের কালভার্ট ভেঙে গাড়ি দূর্ঘটনা

জামালপুর প্রতিনিধি: জামালপরের নুতন বাইপাস রাস্তা নির্মানে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব অবহেলার কারণে কালভার্ট ভেঙ্গে রাস্তা নির্মান কাজে ব্যবহৃত একটি গাড়ি দূর্ঘটনার কবলে পরেছে। বুধবার বিকেলে শহরের ফৌজদারি এলাকার নতুন বাইপাস রাস্তায় এই দূর্ঘটনা ঘটেছে। এতে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। শহরের যানযট িরসনের লক্ষে দীর্ঘ দিন যাবৎ জামালপুর শহরের ফৌজদারি থেকে শেরপুর ব্রীজ পর্যন্ত নতুন বাইপাস রাস্তা বাস্তবায়নের কাজ চলমান। অন্যান্য কাজ শেষে বর্তমানে কার্পেটিংর কাজ চলছে। কার্পেটিং কাজে ব্যবহারের জন্য ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের পাথরে পিচ মেশানো একটি লোর্ড গাড়ি ফৌজদারি এলাকায় নতুন সড়কে কালভার্ট ভেঙ্গে দুর্ঘটনার কবলে পরে।

সূত্রে জানা গেছে, অনেক বছর পূর্বে জামালপুর পৌরসভা শহরের দেওয়ানপাড়া এলাকার পানি নিষ্কাশনের জন্য এই কালভার্টি নির্মান করে ছিলেন। তখন এদিকে কোন রাস্তা করার পরিকল্পনা সরকারের ছিলনা। কেবলমাত্র পানি নিষ্কাশনের জন্য তৈরি করা হয়ে ছিল এই কালভার্টি। বর্তমানে এই কালভার্টের উপর দিয়ে শহরের বাইপাস নতুন সড়ক নির্মান কাজ করছে সরকার। জনগুরুত্বপূর্ণ ব্যায় বহুল রাস্তাটিতে এমন প্রাক্তন কালভার্ট বহাল তবিয়তে রেখেই নতুন রাস্তা বাস্তবায়ন করছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এমন ঝুঁকি পূর্ণ ব্যবস্থায় যে কোন বড় দূর্ঘটনার কারণ হয়ে উঠবে অাগামী দিনে।

যে সরকারি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সরকার রাস্তা বাস্তবায়ন কাজ করছে, সেই প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব অবহেলা, দক্ষতা ও জবাব দিহিতার অভাবে এবং ভুল সিদ্ধান্তের কারনে এমন প্রাক্তন কালভার্ট বহাল তবিয়তে রেখে সেই সরকারি প্রতিষ্ঠানের পিডি বাইপাস রাস্তা বাস্তবায়ন করছে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ঠিকাদার জানান, আমরা পুরাতন কালভার্ট ভেঙ্গে নতুন কালভার্ট তৈরি করে রাস্তা বাস্তবায়ন করার চাহিদা জানালেও পিডি তা করতে রাজি হননি। তিনি পুরাতন কালভার্টের উপরেই রাস্তা নির্মানের সিদ্ধান্ত গ্রহন করে ওয়ার্ক অর্ডার প্রকাশ করায় অামাদের পিডির সিদ্ধান্তের বাহিরে যাওয়ার সুযোগ নেই।

স্থানিয়দের অভিযোগ, অনিয়মের আশ্রয় নিতেই কর্তৃপক্ষ নতুন কালভার্ট বসাতে অপারকতা দেখিয়েছে এবং দায়িত্ব অবহেলা করেছে। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়াসহ দ্রুত সময়ে কালভার্ট নিমান করে রাস্তা বাস্তবায়নের দাবি এলাকাবাসীর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...