আজ ২২শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই মে, ২০২১ ইং

ট্রাম্পের মতো করোনায় উন্নত চিকিৎসা আর কেউ পায়নি

ডেক্স নিউজ : প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হওয়ার মাত্র তিনদিনের মাথায় সুস্থ হয়ে হোয়াইট হাউসে ফিরেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

চিকিৎসার বলছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পই সম্ভবত ‘পৃথিবীর একমাত্র করোনা রোগী’ যিনি সবচেয়ে উন্নত চিকিৎসা পেয়েছেন। তার মতো এমন চিকিৎসা পৃথিবীর আর কেউই পায়নি। আর এ কারণেই তিনদিনের মাথায় সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছাড়তে পেরেছেন। সুস্থ হয়ে হোয়াইট হাউসে ফিরেই কোটি কোটি মার্কিনিকে করোনার অভয়বাণী শুনিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

তিনি বলেছেন, ‘করোনায় মোটেই ভয় পাবেন না। ২০ বছর আগে আমি যেমন সুস্থ ছিলাম। তার চেয়ে বেশি সুস্থ বোধ করছি।’ কিন্তু যে বিষয়টি তিনি প্রকাশ করেননি সেটা হচ্ছে, তিনি যে ওষুধ ও চিকিৎসা সুবিধা পেয়েছেন তা পাওয়ার সুযোগ-সুবিধা নেই মার্কিনিদের।

শুক্রবার রাতে করোনা আক্রান্ত ট্রাম্পকে মেরিল্যান্ডের ওয়াল্টার রিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ সময় তার করোনার হালকা কিছু উপসর্গ ছিল। আগে থেকেই চিকিৎসাও চলছিল তার।

সিএনএন জানায়, হাসপাতালের ভর্তির আগেই তাকে বায়োটেক কোম্পানি রিজেনারনের পরীক্ষামূলক এন্টিবডি থেরাপি দেয়া হয়েছিল। এই থেরাপি করোনাভাইরাসের লেভেলকে কমিয়ে আনে এবং এটা আগেই ২৭৫ জন রোগীর ওপর পরীক্ষায় প্রতিশ্রুতিশীল ফল দেখিয়েছিল। তবে এই চিকিৎসাকে মার্কিন ওষুধ প্রশাসন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) অনুমোদন দেয়নি। রিজেনারন বলেছে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের চিকিৎসকদের অনুরোধেই ওই ওষুধটি সরবরাহ করা হয়। হাসপাতালে ভর্তি করার পর পরই ট্রাম্পকে আরও বেশ কিছু চিকিৎসা দেয়া হয়েছিল। ওষুধ হিসেবে দেয়া হয় রেমডিসিভির এবং ডেক্সামেথাসন।

জর্জ ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির মেডিসিন বিষয়ক প্রফেসর ড. জোনাথন রেইনার বলেন, এই গ্রহে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পই হয়তো একমাত্র রোগী, যিনি এসব ওষুধের একটি সমন্বিত চিকিৎসা পেয়েছেন। তার জন্যই জরুরিভিত্তিতে রেমডিসিভির ব্যবহারের অনুমোদন দেয়া হয়।

অ্যান্টি-ভাইরাল ওষুধ রেমডেসিভিয়ারের দুটো ডোজের পাশাপাশি একটি পরীক্ষামূলক অ্যান্টিজেন ককটেল দেয়া হয় ট্রাম্পকে। বাধ্য হয়েই শুরু হয়েছে স্টেরয়েড চিকিৎসা। ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় দেখা গেছে, রেমডিসিভিরের পাঁচদিনের কোর্স অনেক রোগীর সুস্থ হওয়ার গতি ত্বরান্বিত করেছে। রেমডিসিভির দেয়া হয় আইভি পদ্ধতিতে। তাই কাউকে পাঁচদিনের কোর্সের এই ওষুধটি নিতে হলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়। অথচ কোর্স শেষ হওয়ার আগেই ট্রাম্পকে সোমবার বাসায় ফেরার অনুমোদন দেন চিকিৎসকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...