আজ ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৮ই মার্চ, ২০২১ ইং

পাঁচবিবিতে ঐতিহ্যবাহী গ্রামীণ পাতা খেলা অনুষ্ঠিত

পাচবিবি প্রতিনিধি:জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে ঐতিহ্যবাহী গ্রামীণ পাতা খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ শনিবার বৈকাল ৩ঘটিকায় উপজেলার ধরঞ্জী ইউনিয়নের তাজপুর যুব সমাজের আয়োজনে তাজপুর গ্রামে এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়।
হারিয়ে যাওয়া গ্রামীণ এই পাতা খেলা আয়োজন করায় পাশপাশের গ্রামের সহ¯্রাধিক নারী পুরুষের মনকে আনন্দে ভরিয়ে দিয়েছে কয়েক মর্হুত। তবে আয়োজকরা বলছে, গ্রামীন এই ঐতিহ্যবাহী পাতা খেলা আয়োজনের মাধ্যমে নবীন প্রজম্মের মাঝে পরিচিত করাই মূল উদ্দেশ্য।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, তাজপুর গ্রামের একটি ফসলী মাঠের মধ্যে গোলাকার হয়ে দাঁড়িয়ে আছে সহ¯্রাধিক নারী পুরুষ। মাঝখানে পুতে রাখা একটি কলা গাছের চারিদিকে বসে আছে ৫/৬জন লোক। যাদের গ্রামীণ ভাষায় পাতা বলে। যাদের মন্ত্রের মাধ্যমে নিদিষ্ট বৃত্তের মধ্যে রাখা হয়েছে।
আর দর্শক সারিতে খন্ড খন্ড ভাবে রয়েছে কিছু মন্ত্র পাঠক (গুনোমান)। যাদের কাজ তাদের তন্ত্র মন্ত্র পাঠের মাধ্যমে কলা গাছের বৃত্তের মধ্যে থাকা মন্ত্রবান ভেদ করে পাতাগুলো কে নিজের কাছে টানা। এভাবে যে যত বেশি পাতা নিজের কাছে টানতে পারবে সে এই খেলার বিজয়ী।
উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের মন্ত্র পাঠক গুনোমান ফজলু বলেন, আমি দীর্ঘ ২০ বছর ধরে এই পাতা খেলায় অংশ গ্রহণ করছি। আমার জীবনে বহু খেলায় পাতা টেনে পুরুস্কার পেয়েছি।
উপজেলার আটুল গ্রামের অপর গুনোমান ফিরোজ হোসেন জানান, যেখানেই পাতা খেলার সংবাদ পায় সেখানে ছুটে যায়।
খেলা দেখতে আসা রফিকুল ইসলাম বলেন, গ্রামীণ সংস্কৃতির এই আনন্দদায়ক খেলা গুলো ইদানিং হারিয়ে যেতে বসেছে। নতুন করে আবার দেখতে পাওয়ায় খুব ভাল লাগছে।
মিন্টু নামের এক দর্শক বলেন, গুনোমানরা বিভিন্ন ধরনের ছন্দের মাধ্যমে মন্ত্র পাঠ করা অনেক মজা পাওয়া যায়। পাশাপাশি কোন গুনোমানের কি রকম মন্ত্রের শক্তি তা পাতা টানার মাধ্যমে জানা যায়।
স্থানীয় ইউপি সদস্য শাহাবুল আলম বলেন, এটি একটি ঐতিহ্যবাহী গ্রামীণ খেলা। এখনও গ্রামের সকল বয়সের লোকদের নিকট অত্যন্ত জনপ্রিয়।
গ্রামীণ ঐতিহ্যবাহী খেলা গুলো মাঝে মাঝে আয়োজনের মাধ্যমে বিনোদন পিপাসু লোকদের উৎসাহিত করবে বলে মনে করছেন অনেকেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...