আজ ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৮ই মার্চ, ২০২১ ইং

গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে এগিয়ে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী রাফি

গোবিন্দগঞ্জ প্রতিনিধি: গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জে আগামী ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে পৌরসভার সাধারণ নির্বাচন। নির্বাচনের দিন যত ঘনিয়ে আসছে, ততই বাড়ছে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণায় শেষ উত্তাপ। শেষ মূহুর্তের প্রচারণায়  পাড়া মহল্লা বসতবাড়ীর সামনে চায়ের দোকান থেকে শুরু করে পৌর এলাকার সর্বত্রই চলছে নির্বাচনী আলোচনা সমালোচনা। নির্বাচনকে সামনে রেখে গোবিন্দগঞ্জ পৌরশহর পোস্টারের ছেয়ে গেছে। এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রার্থীদের কর্মী সমর্থকগণ চালিয়ে যাচ্ছেন পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে প্রচার প্রচারণা। বিগত সময়ের নির্বাচন গুলোর চেয়ে বর্তমান সময়ে এ নির্বাচন বেশ জমে উঠেছে। প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীরা ঘুরছেন ভোটারদের নিকট গিয়ে ভোট ও দোয়া প্রার্থনা করছেন। এতে ভোটারদের মধ্যে নির্বাচন নিয়ে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

এ নির্বাচনে ৫ জন মেয়র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করেছেন সকলে পৌর এলাকার ভোটাদের নিকট গিয়ে ভোট ও দোয়া প্রার্থনা করছেন। দল মনোনীত দলীয় প্রার্থীদের সাজানো গোছানো প্রচার প্রচারণা চলমান থাকলেও স্বতন্ত্র প্রার্থী শহীদ পরিবারের সন্তান জনগণের ম্যান্ডেট নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দি প্রার্থী হিসাবে পূর্বে ন্যায় পৌরবাসীর নিকট ভোট ও দোয়া প্রার্থনা করে ব্যাপক ভাবে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন নারিকেল গাছ প্রতিকের প্রার্থী মুকিতুর রহমান রাফি ।

তিনি বিগত সময়ে পৌরবাসীর উন্নয়নের নামে দূর্ভোগ কে পুজি করে যারা নিজেদের আখের গোছাতে ব্যস্ত থেকেছে তাদের বর্জন করার আহবান জানান।

এদিকে সাধারণ ভোটাররা বলছেন, এবারের নির্বাচনে হুজুগে  পড়ে কাউকে নির্বাচিত করবেন না। বড় বড় মিছিল মিটিং দেখে নয় তারা যোগ্য প্রার্থীকে ভোট দিয়ে পৌর মেয়র ও কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর নির্বাচিত করেবেন বলে দাবী করেন। সেক্ষেত্রে নির্বাচনে এ পর্যন্ত আগাম প্রচার প্রচারণাসহ  স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মুকিতুর রহমান রাফি পৌরবাসীর মৌন সমর্থণে এগিয়ে রয়েছেন।

বিগত সময়ে দায়িত্বে থাকা মেয়র ও কাউন্সিলরদের কর্মকান্ড এ নির্বাচনে প্রভাব পরবে বলে মনে করেন স্থানীয় নির্বাচন বিশ্লেষকগণ। তারা মনে করেন বিগত পৌরসভা নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের কর্মকান্ড ভোটের মাঠে ব্যাপক ভাবে আলোচনা সমালোচনা চলছে। তারা মনে করেন স্থানীয় নির্বাচনে প্রতিকের চাইতে ব্যক্তি ইমেজটাই বেশী প্রাধান্য পায় সাধারণ ভোটারদের মাঝে। যেহেতু পৌরবাসীকে পৌরসভার নিকট দ্বারস্ত হতে হয় সেহেতু তারা জনবান্ধব ব্যক্তিকেই ভোট দিয়ে পৌরসভায় নিজেদের প্রতিনিধি নির্বাচন করবেন ।

সারাদেশের ন্যায় তৃতীয় ধাপে এবারের গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ৫ জন প্রার্থী মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কৃষকলীগ নেতা ও সাবেক জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান কে,এম খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম, বিএনপি মনোনিত ধানের শীষের প্রতিকের প্রাথী ফারুক আহম্মেদ,  নারিকেল গাছ প্রতীকে নির্বাচন করছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী শহীদ পরিবারের সন্তান মুকিতুর রহমান রাফি,মোবাইল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে জহুরা খাতুন,হাতপাখা প্রতীকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ প্রার্থী আনিছুর রহমান। এ ছাড়া ৩৭ জন কাউন্সিলর প্রার্থী ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১২ জন প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে জোড়ে শোরে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এদিকে শান্তিপূর্ন পরিবেশে অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষে গোবিন্দগঞ্জ পৌর নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার আব্দুল মোতালেব তিনি বলেন, নির্বাচনে ভোট গ্রহনের সকল প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে। নির্বাচনের প্রচার প্রচারণা শেষ দিন হতে নির্বাচনের পরের দিন পর্যন্ত পুরো পৌরসভা নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে,এক্ষেত্রে তিনি শান্তিপুর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে প্রার্থী ও ভোটারদের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

উল্লেখ্য, গোবিন্দগঞ্জ পৌর সভার ৯ টি ওয়ার্ডে মোট ২৯ হাজার ৯ শত ৭৯ জন নারী পুরুষ ভোটার আগামী ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করে  বছরের জন্য গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভায় জনবান্ধব মেয়র নির্বাচিত করবেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...