আজ ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ ইং

তুচ্ছ ঘটনায় মারপিট ও শ্লীলতাহানীর অভিযোগ

গোবিন্দগঞ্জ প্রতিনিধি : গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনায় মারপিট ও শ্লীলতাহানীর অভিযোগ থানায় দায়ের করা হয়েছে।  অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের পুনতাইর (আমবাড়ী) গ্রামের মৃত-ইয়াছিন আলীর ব্যাপারীর ছেলে একরাম হোসেন (৩৫), একই গ্রামের মৃত-আঃ জোব্বারের ছেলে ফজেল হক (৪৯) এর কাছ থেকে প্রায় ২ বছর পূর্বে ৯ লাখ টাকা বাকীতে গরু নেই। ওই গরুগুলো বিক্রয়ের জন্য চট্রগ্রাম নিয়া যায়।

বাজার মন্দা থাকাই ৩ লাখ টাকা ক্ষতিতে গরুগুলো বিক্রয় করে ফজেল হক কে ৮ লাখ ৮৭ হাজার টাকা বুঝিয়া দেয়। এর মধ্যে আরো ১৩ হাজার টাকা ফজেল হক পাওনা থাকে। একরাম হোসেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী হিসেবে উক্ত ১৩ হাজার টাকা ফজেল হকের কাছে মাফ চাহিলে সে মাফ না দেওয়ায় গত ২৮ এপ্রিল সকাল অনুমান সাড়ে ৯ টার দিকে একরাম হোসেনের বাড়ীতে যেয়ে ফজেল হক টাকার দাবী করে ১ হাজার ৫ শ’ টাকা দেয় এবং অবশিষ্ঠ টাকা ঈদুল ফিতরের পরে পরিশোধ করার কথা বলে।

 

এই অবস্থা চলাকালে ১১ মে (সোমবার) সকাল ১০ টার দিকে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে ফজেল হক ও তার ছেলে হাছান মিয়া (২২), মান্নার ছেলে শাহারুল ইসলাম (২৫) দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র সহ একরাম হোসেনের বাড়ীতে যেয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করিয়া টাকার দাবী করে। সে ঈদুল ফিতরের পরে টাকা দিবে বলে তাদের জানায়। কিন্তু তারা এসব না মেনে একরাম হোসেনকে মারপিট করে রক্তাক্ত করে।

এ সময় তার স্ত্রী এগিয়ে গেলে তাকেও এলোপাথারী ভাবে টানাহেচড়া করে মারপিট ও শ্লীলতাহানী ঘটায় এবং শয়ন ঘরের ষ্টিলের বাক্সের তালা ভেঙ্গে ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা নিয়ে যায়। স্থানীয়রা এগিয়ে এসে একরাম হোসেনকে চিকিৎসার জন্য উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে এসে ভর্তি করায়। এ বিষয়ে একরাম হোসেন বাদী হয়ে ফজেল হক সহ ৩ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি এজাহার দায়ে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...