আজ ২৭শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ই এপ্রিল, ২০২১ ইং

মৈত্রী সেতুর মাধ্যমে দুই দেশের সম্পর্ক আরো দৃঢ় হবে বললেন মোদি

ডেক্স নিউজ : বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সেতুর মাধ্যমে দুই দেশের সম্পর্ক আরও দৃড় হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) দুপুরে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে হয়ে তিনি সেতুটির শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন। এসময় ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নরেন্দ্র মোদি বলেন, ৩০ বছর ধরেও কেউ এ কাজটি করতে পারেন নি, যা আমি সম্পন্ন করলাম। ত্রিপুরা বিকাশের জন্য কেন্দ্রীয় সরকার সর্বদা কাজ করে যাচ্ছে। ৪০ হাজার গ্রামের উন্নতি হচ্ছে, এ ফলে গরীব ও অসহায়দের মধ্যে সুখ ফিরে আসবে।

তিনি বলেন, ৩ বছর পর ত্রিপুরার মানুষ সুখ খুঁজে পাচ্ছে, রাজ্যের মধ্যে শক্তি বিকাশ লাভ করছে, যা অপশক্তি প্রতিরোধ করবে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, সেতু-১ উদ্বোধনের মধ্যেদিয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে নতুন করে সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। এতে শান্তি প্রতিষ্ঠা হবে, আয় বাড়বে। এটি শুধু এটার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না, এর মাধ্যমে পানি, আইসটি, ট্রানজিট ও সীমান্তের সমস্ত সমস্যার সমাধান হবে। আগরতলায় বড় কারখানা প্রতিষ্ঠা করা হবে, এর মাধ্যমে বাংলাদেশের সঙ্গে সস্পর্ক আরো বৃদ্ধি হবে।

অনুষ্ঠানে প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ফেনী সেতুর উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক আরও মজবুত হলো। ফেনী নদী বাংলাদেশ ও ভারতের সীমান্ত দিয়ে প্রবাহিত। সেতুটির দৈর্ঘ্য ১ দশমিক ৯ কিলোমিটার। এটি রামগড়ের সঙ্গে ভারতের ত্রিপুরার সাবরুমে যুক্ত হয়েছে। ১৩৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ভারতের ন্যাশনাল হাইওয়েস অ্যান্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট করপোরেশন নির্মাণ করেছে এই সেতু। চট্টগ্রাম বন্দর থেকে এই সেতু দিয়ে সহজেই ত্রিপুরাসহ ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ব্যবসা-বাণিজ্য সহজ হবে।

ফেনী নদীর ওপর নির্মিত সেতুটির নাম রাখা হয়েছে ‘মৈত্রী সেতু’। এটি উদ্বোধনের পর ত্রিপুরার সাবরুমে একটি ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্টেরও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর...